অনলাইন ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জ শহর থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের (আগেকার আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) জেলার সমন্বয়কসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-১১। শহরের ভূঁইয়ারবাগ এলাকা থেকে গতকাল রোববার রাত ১১টার দিকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। র‍্যাব জানিয়েছে, গ্রেপ্তার হওয়া দুজনের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ল্যাপটপসহ বিপুলসংখ্যক উগ্রবাদী বই ও লিফলেট।

গ্রেপ্তার দুজন হলেন মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ি উপজেলার আবু সাঈদ (২৪) ও বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলার এস এম মাহাদী হাসান ওরফে গোলাম রাব্বী (২৬)। তাঁরা দুজনেই নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় থাকতেন।

আজ সোমবার বিকেলে র‌্যাব-১১-এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলেপউদ্দিনের স্বাক্ষর করা প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে কাল রাত ১১টার দিকে শহরের ভূঁইয়ার বাগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাঁদের দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‍্যাবের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আবু সাঈদ ২০১১ সালে মাসদাইর আদর্শ স্কুল থেকে এসএসসি পাস করেন এবং ২০১৬ সালে নারায়ণগঞ্জ মেরিন একাডেমি থেকে ডিপ্লোমা করেন। পড়াশোনার পাশাপাশি ২০১৫ সালের দিকে অনলাইনে কাপড়ের ব্যবসা শুরু করে। ২০১৪ সালে তিনি এক পীরের অনুসারী হন। পরবর্তী সময় ফেসবুকে বিভিন্ন উগ্রবাদী পোস্ট পড়ে এবং ইউটিউব দেখে উগ্রবাদী চেতনায় উদ্বুদ্ধ হন। কথিত বড় ভাইয়ের মাধ্যমে ২০১৬ সালে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমে যোগদান করেন। যোগদানের পর তিনি সংগঠনের দাওয়াতি কাজ করতেন। তিনি ফেসবুক ও অনলাইনের মাধ্যমে বিভিন্ন উগ্রবাদী লেখা পোস্ট করতেন এবং তা শেয়ার করে মানুষের মধ্যে পৌঁছে দিতেন।

আবু সাঈদ নারায়ণগঞ্জের আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করতেন। একই এলাকায় বাসা হওয়ায় আবু সাঈদের সঙ্গে এস এম মাহাদী হাসান ওরফে গোলাম রাব্বীর পরিচয় হয়। সাঈদের মাধ্যমে গোলাম রাব্বী আনসারুল্লাহ বাংলা টিমে যোগদান করেন। তিনি দাওয়াত পাওয়ার পর সংগঠনটির পক্ষে দাওয়াতি কাজ করতেন ও অনলাইনের মাধ্যমে বিভিন্ন উগ্রবাদী মতবাদ প্রচার করতেন বলে জানা যায়।

র‍্যাব জানায়, দুজনের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে ফতুল্লা থানায় মামলা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here