অনলাইন ডেস্ক ::: রাজধানীর সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে নোঙর করে রাখা এম ভি কীর্তনখোলা নামে একটি লঞ্চে সহকর্মীর বটির কোপে রুবেল নামে একজন নিহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তি ও হামলাকারী দু’জনই লঞ্চটির কর্মচারী ও বাবুর্চি পদে কাজ করতেন বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (১৮ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে ঢাকা-বরিশাল রুটের লঞ্চটিতে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে লঞ্চের রান্নাঘরে তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে তর্ক-বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন বাবুর্চি রুবেল ও ইয়ামিন। এসময় ইয়ামিন রুবেলকে ঘুষি মারেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ইয়ামিন তার হাতে থাকা বটি দিয়ে রুবেলকে কোপ দেন। পরে রুবেলকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে সদরঘাট নৌ-থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম ভূঁইয়া বলেন, তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে কীর্তনখোলা লঞ্চের নিচতলায় রান্নাঘরে দুই বাবুর্চির মধ্যে তর্ক-বিতর্ক হয়। এক পর্যায়ে একজন অপরজনকে বটি দিয়ে আঘাত করলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে রুবেল নামে এক বাবুর্চি মারা যান।

এদিকে, এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি শাহ জামান।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here