তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, দণ্ডপ্রাপ্ত বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি সহানুভূতি দেখিয়ে প্রধানমন্ত্রী কারাগার থেকে বাড়িতে থাকার সুযোগ দিয়েছেন। কিন্তু বিএনপি নেতাকর্মীদের বক্তব্য শুনে তাকে পুনরায় কারাগারে পাঠানোর কথা ভাবা হচ্ছে।

শুক্রবার (২৭ মে) সন্ধ্যার দিকে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে আবৃত্তি উৎসবে যোগদিতে গিয়ে গণমাধ্যমকে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, সারা দেশে বিএনপি বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বহিরাগতদের নিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। দেশের সর্বোচ্চ আদালতের সামনে বহিরাগত ও সন্ত্রাসীদের নিয়ে সমাবেশ ঘটিয়েছে। এগুলোর পেছনে তাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের হাত রয়েছে। তারেক রহমান বিভিন্ন জায়গায় ফোন করে করে সারাদেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্য নির্দেশ দিচ্ছেন। আমাদের দলের নেতাকর্মীরা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য বিশৃঙ্খলা প্রতিহত করবে।

হাছান মাহমুদ বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের দেওয়া প্রতিশ্রুতি একে একে বাস্তবায়ন হওয়ায় তারেক রহমানের নির্দেশে বিএনপি দেশে আবারও একটি অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। সেজন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও সুপ্রিমকোর্টের সামনেও তাদের লেলিয়ে দেওয়া সন্ত্রাসীরা অরাজকতা তৈরির চেষ্টা করছে। তারেক রহমান নিজেই দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। তাকে কীভাবে দেশে ফিরিয়ে আনা যায় সে বিষয়টি দেখছে সরকার।

তিনি বলেন, বিএনপি নেতারা পদ্মাসেতু নিয়ে মিথ্যাচার করে এখন আর মুখ খুলছেন না। কারণ তাদের মিথ্যাচার প্রমাণিত হয়ে গেছে। তাই নতুন ষড়যন্ত্রের ফাঁদ খুঁজছেন।

এসময় কক্সবাজার সদর রামু আসনের সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, অধ্যাপক ড. অনুপম সেন, জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, বাংলা একাডেমির মহা-পরিচালক মুহাম্মদ নুরুল হুদা ও জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here