“মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার” এ শ্লোগানকে সামনে রেখে আমরা সত্যিকারের জনগণের পুলিশ হতে পেরেছি কি-না, তা কাজের মাধ্যমে তথা জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার মাধ্যমে পরিচয় দিতে চাই। আর এজন্যই ওপেন হাউজ ডে। যেখানে আমরা সাধারণ মানুষের বিশেষ করে যে সকল ভুক্তভোগী পুলিশের কাঙ্খিত সেবা পাচ্ছেন না তাদের কথা শুনতে চাই। বরিশাল মেট্রোপলিটন কাউনিয়া থানার আয়োজনে শনিবার (৭মার্চ) সকালে ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে এ কথাগুলো বলেন বিএমপি কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান (বিপিএম-বার)।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই বিগত ওপেন হাউজ ডে-তে উত্থাপিত বিষয়ের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। প্রতিবেদন তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিমুল করিম। এরপর যথারীতি উপস্থিতিদের জন্য উন্মুক্ত আলোচনা শুরু হয়। এ সময় বিভিন্ন ভুক্তভোগীর বক্তব্য অত্যন্ত মনোযোগ দিয়ে শোনেন কমিশনার। এছাড়া উত্থাপিত বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের তাৎক্ষণিক নির্দেশনা দেন তিনি।

বিএমপি কমিশনার বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে এই মুজিব বর্ষে মাননীয় আইজিপি মহোদয়ের নেতৃত্বে জনগণের পুলিশ হতে যে জনমুখী গণমুখী কার্যক্রম এর ধারা অব্যাহত রেখে উন্নয়নের যে হাইওয়েতে অবস্থান করছি সেখান থেকে পিছনে তাকানোর সুযোগ নেই।

ভুক্তভোগীদের পৃথক পৃথক বক্তব্যের প্রেক্ষিতে পুলিশ কমিশনার বলেন, সৎ ও নিষ্ঠাবান, নৈতিকতা সম্পন্ন লোকদের কমিউনিটি পুলিশিং এর কমিটিতে রাখতে হবে। এ কমিটিতে যদি নৈতিকতা বিপন্ন লোকদের রাখা হয় তাহলে ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠানের লক্ষ্য অর্জিত হবে না।

ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠানে প্রতিদিনই নতুন নতুন অংশগ্রহণকারী আসছে। এতে আপনাদের মতামত পরামর্শ পেয়ে আমাদের কাজ অনেকটা সহজ হচ্ছে। আপনাদের মতামত আমাদের কর্মকাণ্ডের সমন্বয় সাধনে সহায়তা করে।

তিনি বলেন, তিনটি উদ্দেশ্য নিয়ে ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত হয়। প্রথমতঃ যারা পুলিশের কাঙ্খিত সেবা বঞ্চিত সেই সকল ভুক্তভোগীদের কথা আমরা কর্মকর্তাবৃন্দ সরকারি শুনতে চাই। দ্বিতীয়তঃ কমিউনিটি ও বিট পুলিশিং কার্যক্রম সম্পর্কে সকলকে অবহিত করা। তৃতীয়তঃ জনপ্রতিনিধি, সচেতন ব্যক্তি যারা সমাজকে সুন্দর রাখতে বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে থাকেন সেগুলো শুনতে চাই।

তিনি বলেন, ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠানে যে সকল ভুক্তভোগী এসেছেন তাদের সকলের কথা শুনতে চাই। এজন্য সময় যা লাগুক। বিভিন্ন প্রসংগে আলোচনার প্রেক্ষিতে বিএমপি কমিশনার বলেন, থানা এলাকায় কম বয়সী অটো চালকদের তালিকা করতে হবে। এজন্য তিনি থানার কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন।

তিনি আরো বলেন, সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা থানার গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় থানার কর্মকর্তাদের নাম এবং মোবাইল নম্বর সম্বলিত সাইন বোর্ড স্থাপন করা হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার প্রলয় চিসিম বলেন, ওপেন হাউজ অনুষ্ঠানে কোন বিষয় অভিযোগ আসলে তা যথাযথভাবে পর্যালোচনা করতে হবে এবং শেষ পর্যন্ত ফলাফল চাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here