শামীম আহমেদ ॥ স্বামীর স্বীকৃতি ও এক বছরের একমাত্র পুত্র সন্তানকে ফিরে পাওয়ার জন্য পুলিশ ও প্রশাসনসহ প্রভাবশালীদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়ায় অসহায় লিনা আক্তার। গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত জাহান জানতে পেরে অসহায় লিনাকে আশ্রয় দেন তার সরকারি বাসভবনে। দীর্ঘ এক মাস পর কয়েক দফা সালিসের পর বুধবার সকালে ইউএনও’র কার্যালয়ে স্বামীর সাথে লিনার মিমাংসা করে দিয়ে পুত্র সন্তানটিকে লিনার কোলে তুলে দেন। এ সময় লিনা ও তার স্বামী রেজাউল সরদার আনন্দে আত্মহারা হয়ে পরে। রেজাউল দম্পত্তি উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত জাহানকে কৃতজ্ঞ প্রকাশ করেন।

 

জানা গেছে, গৌরনদী উপজেলার ধানডোবা গ্রামের আক্কাচ সরদারের কন্যা লিনা আক্তারের সাথে দুই বছর পূর্বে সামাজিক ভাবে বিয়ে একই গ্রামের মোঃ আলি সরদারের পুত্র রেজাউল সরদারের সাথে। গত এক বছর পূর্বে তাদের কোল জুড়ে একটি পুত্র সন্তান জন্ম হয়। সন্তান জন্ম নেয়ার কিছু দিন যেতে না যেতেই তাদের রেজাউল ও লিনার মধ্যে সামান্য বিষয় নিয়ে দাম্পত্ত কলোহ শুরু হয়।

 

এক পর্যায়ে লিনা সন্তান রেখে তার বাবার বাড়ি চলে আসে। অসহায় লিনা সন্তান ফিরে পাওয়ার জন্য প্রায় পাগল হয়ে স্থানীয় গন্যমান্যসহ গৌরনদী মডেল থানায় শরণাপন্ন হয়। সব চেষ্ঠা ব্যার্থ হয়ে অসহায় লিনা এক পর্যায়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত জাহানের কাছে দ্বারস্থ হয়। অসহায় লিনা কথা শুনে তাকে (লিনা) তার বাসভবনে আশ্রয় দেন। পরবর্তীতে দুই দফা সালিসের পর বুধবার সকালে সকল ভূল বোঝার অবসান ঘটিয়ে লিনার কোলে তার পুত্র সন্তানকে তুলে দেন এবং লিনাকে রেজাউল স্ত্রী মর্যাদা দিয়ে বাড়িতে নিয়ে যান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here