ঝালকাঠির নলছিটিতে নির্যাতনের পর গৃহবধূকে মুখে বিষ ঢেলে হত্যার ঘটনায় স্বামী এবং শ্বশুরসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে নলছিটি থানার ওসিকে মামলা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার নিহত ওই গৃহবধূ নুসরাত জাহান ইভার বাবা নলছিটি উপজেলার বৈচণ্ডী গ্রামের গাজী আকতার হোসেন ঝালকাঠি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এ নালিশি মামলা দায়ের করেন।

আদালতের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ গাজী রহমান পরবর্তী তিন কার্যদিবসের মধ্যে মামলা নিতে নলছিটি থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

মামলায় যাদের আসামি করা হয়েছে, তারা হলেন- ইভার স্বামী তরিকুল ইসলাম লিংকন, শ্বশুর আহসান হাবিব, শাশুড়ি জাহানআরা বেগম, ভাসুর মো. সুজন ও তার স্ত্রী হাসি বেগম।

বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোজাম্মেল হোসেন যুগান্তরকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, পাঁচ বছর পূর্বে নলছিটির বৈচণ্ডী গ্রামের আহসান হাবিবের ছেলে তরিকুল ইসলাম লিংকন হাওলাদারের সঙ্গে বিয়ে হয় নুসরাত জাহান ইভার। বিয়ের পর নানা কারণে ইভাকে নির্যাতন করতেন তার স্বামী ও পরিবারের সদস্যরা।

এছাড়াও ইভার পরিবারের কাছে দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেছিলেন তার স্বামী লিংকন। নির্যাতন সইতে না পেরে গত ৩০ মে দুপুরে ইভা অজ্ঞান হয়ে যায়।

পরে স্বামী তরিকুল ইসলাম লিংকনসহ অন্যরা মিলে ইভার মুখে জোরপূর্বক বিষ ঢেলে দেয়। দীর্ঘ ১৪দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে ইভা গত ১৪ জুন সন্ধ্যায় শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ইভা মারা যান।

ইভার মৃত্যুর পরেই স্বামী লিংকনের পরিবার বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়। এ বিষয়ে নলছিটি থানায় ইভার বাবা মামলা দায়ের করতে গেলে ওসি ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন ছাড়া মামলা নিতে অস্বীকৃতি জানান। বাধ্য হয়ে ইভার বাবা আদালতে মামলা দায়ের করেন।

এ ঘটনায় নিহত ইভার স্বামী পলাতক থাকায় তরিকুল ইসলাম লিংকনের বক্তব্য জানা যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here