বরিশালে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত রেগীদের খোঁজখবর নিলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুক শামীম এমপি। পাশাপাশি দক্ষিণাঞ্চলের একমাত্র চিকিকৎসা সেবা কেন্দ্র শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে সার্বিক খোঁজ-খবরও নিলেন। আক্রান্ত রোগীরে শনাক্ত করনে ব্যবহৃত রসদ কিটস চহিদা অনুযায়ী সবরাহে আশ্বস্ত করেছেন। ডেঙ্গু শনাক্তে প্রাথমিক এই উপাদানটি শেষ হয়ে যাওয়ার খবরে বরিশাল সদর আসনের সাংসদ নিজ উদ্যোগে শেবাচিম কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেন।

শুক্রবার সন্ধ্যার পর প্রতিমন্ত্রী নিজেই শেবাচিম পরিচালক ডাক্তার বাকির হোসেনকে ফোন করে সার্বিক বিষয়ে অবগত হন। দীর্ঘ সময়ের আলাচারিতায় একপর্যায়ে পরিচালক কিটস সরবরাহের অভাবে ডেঙ্গু পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে জানালে প্রতিমন্ত্রী বিষয়টি সাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিবকে অবহিত করেন। পাশাপাশি তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রীকের কাছেও দ্রুত রসদ চেয়ে সুপারিশ রাখেন।

এছাড়া আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদ ফারুক শামীমের আস্থাভাজন বরিশাল সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহাবুবুর রহমান মধুকে শনিবার সরেজমিন মেডিকেলে ঘুরে রোগীদের খোঁজ-খবর নেওয়া এবং পরিচালকের সাথে আলোচনা করে সার্বিক পরিস্থিতি জানানোর নির্দেশনা দিয়েছেন। সঙ্কট মুহূর্তে শেবাচিম কর্তৃপক্ষ ও রোগীদের সাহায্যর্থে হাত বাড়িয়ে দেওয়ার বিষয়টিকে অনেকেই ইতিবাচক হিসেবে মনে করছেন।

শেবাচিম পরিচালক বাকির হোসেন দাবি করেন, কিটস সরবরাহের বিষয়ে প্রতিমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে খুব দ্রুত সময়ে সুফল আসবে। কারণ একেতো তিনি বরিশাল সদর আসনের সাংসদ, তারে পরে প্রধানমন্ত্রীর স্নেহভাজন।

আওয়ামী লীগ নেতা ভাইস চেয়রম্যান মাহাবুবুর রহমান মধু নির্দেশনারর বিষয়টি অবহিত করে জানান, শনিবার সকাল ১০ দিকে তিনি শেবাচিমে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের খোঁজ-খবর নিতে যাবেন এবং হাসপাতাল পরিচালকের সাথে সার্বিক বিষয় নিয়ে আলোচনা পরবর্তী প্রতিমন্ত্রীকে অবহিত করবেন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here