রাজধানীর জিগাতলা এলাকার একটি বাড়ি থেকে ক্রিস্টাল, এমডিএমএ এবং আইস নামে তিন ধরনের নতুন মাদক উদ্ধার করা হয়েছে। এই বাড়ির ভেতরে মাদকের একটি ল্যাবরেটরিও সন্ধান পেয়েছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। এর সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (উত্তর) খুরশীদ আলম প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকায় রাকিব উদ্দিন এবং ইস্কাটন এলাকা থেকে জাকারিয়া ও হেলাল হোসেন ওরফে সাদ্দাম নামে তিনজনকে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা হয়। এদের কাছ থেকে তথ্য পেয়ে মঙ্গলবার রাত থেকে আজ বুধবার বিকেল পর্যন্ত জিগাতলার ৬২ নম্বর বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে ওই বাড়ি থেকে ক্রিস্টাল, এমডিএমএ এবং আইস নামে তিন ধরনের মাদকদ্রব্যের চালান উদ্ধার করা হয়। এর মধ্যে ক্রিস্টাল ও আইস দানাদার জাতীয় মাদক। এ ছাড়া এমডিএমএ মাদকটি এক ধরনের ট্যাবলেট।

তিন ধরনের মাদকই সেবনের পর মানবদেহে উত্তেজনার সৃষ্টি করে। মাদকের এই চালানের সঙ্গে জড়িত হাসিব নাম এক যুবক। তাঁকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। ক্রিস্টাল উচ্চমাত্রার এক ধরনের মাদক। ক্রিস্টালের মতো দেখতে এটি। তাই এর নাম ক্রিস্টাল। অন্যদিকে আইস নামের মাদকটি দানাদার লবণের মতো দেখতে। বাংলাদেশে এই প্রথমবারের মতো এ ধরনের মাদকের চালান জব্দ করা হয়েছে। হাসিব মালয়েশিয়ায় পড়াশোনা করতে গিয়ে মাদক পাচারের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। তাঁকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এই বাড়ির ভেতরে ল্যাবরেটরি থেকে মাদক তৈরির বিভিন্ন ধরনের বিপুল পরিমাণ উপাদান জব্দ করা হয়।

পলাতক হাসিবসহ আটক তিনজন বাংলাদেশে ক্রিস্টাল, এমডিএম ও আইস নামে মাদকের বাজার তৈরির চেষ্টা করছিলেন। এর আগেই এসব মাদকের চালান আটক করা হয়েছে বলে জানান খুরশীদ আলম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here