রাজধানীর ধানমন্ডিতে একই বাড়ির গৃহকর্তী আফরোজা বেগম ও গৃহকর্মী দিতি হত্যার ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত নারী সুরভি আক্তারকে গ্রেফতার করেছে শেরেবাংলা নগর থানা পুলিশ। সুরভি ভোলার কালুপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের (রহিজল মিয়া) মেয়ে।

রোববার রাত ৮টার দিকে রাজধানীর শেরেবাংলা থানা এলাকার নাক-কান-গলা ক্যান্সার হাসপাতালের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশের ধানমন্ডি জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার আবদুল্লাহ হেল কাফী বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

শেরেবাংলা নগর থানার উপ-পরিদর্শক মো. তহিদুল ইসলাম বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শেরেবাংলা নগর থানার নাক-কান-গলা হাসপাতালের সামনে থেকে রিকশায় যাওয়ার সময় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শেরেবাংলা নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানে আলম মুনশি বলেন, হত্যার পর আমরা জানতে পারি সে এই এলাকায় আছে। এরপর আমরা অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর সুরভিকে ধানমন্ডি হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার (১ নভেম্বর) বিকেলে ধানমন্ডির ২৮ নম্বর সড়কের ২১ নম্বর বাসায় খুন হন গৃহকর্ত্রী আফরোজা বেগম এবং তার গৃহকর্মী দিতি। ঘটনার দিন বিকেলে ওই বাসায় কাজ করার জন্য এক গৃহকর্মীকে নিয়ে এসেছিলেন আফরোজা বেগমের মেয়ে জামাতা মনির উদ্দিন তারিমের ব্যক্তিগত সহকারী বাচ্চু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here