পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুক শামীম এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের নদীভাঙন এলাকার মানুষের দুর্দশা লাঘবে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ শুরু করেছেন। প্রতিটি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে বেড়িবাঁধ নির্মাণ, সুইচগেইট নির্মাণ, খাল খনন, রাবার ড্যাম প্রকল্পসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ হাতে নিয়েছেন। পর্যায়ক্রমে প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন হলে নদীভাঙন অনেকাংশে কমে আসবে। তবে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন হতে কিছুটা সময়ের ব্যাপার।

সোমবার (২২ জুলাই) দুপুরে পটিয়ার কালিগঞ্জ ব্রীজ এলাকায় মালিয়ারা-বাকখাইন-ভান্ডারগাঁও বেড়িবাঁধ উদ্বোধন শেষে এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী, পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক মাহফুজুর রহমান, চট্টগ্রাম দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল প্রধান প্রকৌশলী মীর মোশারফ হোসেন, যুগ্ম সচিব মন্টু কুমার বিশ্বাস, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৗশলী শিবেন্দু খাস্তগীর, নির্বাহী প্রকৌশলী বিদ্যুৎ কুমার সাহা, পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসানসহ দলীয় নেতাকর্মীরা।

আলোচনা সভা শেষে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী সম্প্রতি উপজেলায় পাহাড়ি ঢল, অতিবৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে ক্ষতিগ্রস্ত ভাটিখাইন, হাইদগাঁওসহ বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন। প্রতিমন্ত্রী পটিয়া উপজেলায় নদীভাঙন হ্রাস করতে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করার প্রতিশ্রুতি দেন।

একশ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত বেড়িবাঁধ ছাড়াও পটিয়াকে সুরক্ষায় রাখতে ১২শ কোটি টাকার একটি মেগাপ্রকল্প অনুমোদনের চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে জানান হুইপের উন্নয়ন সমন্বয়কারী ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান দেবব্রত দাশ দেবু। তিনি বলেন, মেগাপ্রকল্প অনুমোদন হলে টেন্ডারের মাধ্যমে কাজ শুরু করা হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here