পেশাগত ক্ষেত্রে সাফল্যের জন্য বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত দুই পুলিশ কর্মকর্তা খন্দকার আবদুল্লাহ ও সাইদ আলীকে সম্মাননা দেওয়া হয়েছে। গতকাল শুক্রবার নিউইয়র্কে কনস্যুলেট জেনারেল আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই সম্মাননা দেওয়া হয়।

কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুন্নেসা বলেছেন, বাংলাদেশি-আমেরিকান কর্মকর্তাদের মধ্যে প্রথমবারের মতো খন্দকার আবদুল্লাহ নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ ডিপার্টমেন্টে (এনওয়াইপিডি) ক্যাপ্টেন পদে পদোন্নতি পেয়েছেন। ক্যাপ্টেন আবদুল্লাহ তাঁর যোগ্যতা ও কর্মদক্ষতার মাধ্যমে এনওয়াইপিডিতে এই সম্মানজনক পদ অর্জন করেন। তিনি আরও বলেন, আরেক পুলিশ কর্মকর্তা সাইদ আলী সম্প্রতি সাবওয়ে স্টেশনে একাই পাঁচজন দুষ্কৃতকারীকে প্রতিহত করেন। এতে পুলিশ বিভাগের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে। ঘটনাটি সে সময় নিউইয়র্কে এবং বিভিন্ন সামাজিক মিডিয়ায় বেশ আলোচিত হয়েছিল।

সিটি মেয়র বিল দা বলাজিও টুইটে পুলিশ কর্মকর্তা সাইদ আলীর পেশাদারি ও সাহসিকতার প্রশংসা করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন। নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ ডিপার্টমেন্টের পুলিশ কমিশনারের প্রতিনিধি হিসেবে ব্রুকলিন ব্যুরো সাউথ পেট্রলের নির্বাহী কর্মকর্তা ও ডেপুটি চিফ চার্লস শল, বাংলাদেশি-আমেরিকান পুলিশ অ্যাসোসিয়েশনের (বাপা) সভাপতি সুজাত খান, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির ও বাপার অন্য কর্মকর্তারা।

অনুষ্ঠানস্থলে একটি ব্যানারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাস্যোজ্জ্বল ছবি দেখিয়ে চার্লস বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের অন্যতম সফল নারী নেত্রী। তিনি নারী ক্ষমতায়নের প্রতিভূ। তাঁর মতো বিশ্বনেতার গতিশীল নেতৃত্বে আরও এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ।’

রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘আমার প্রত্যাশা, সব প্রবাসী বাঙালি ক্যাপ্টেন আবদুল্লাহ ও আলীর সাফল্যে অনুপ্রাণিত হবে।’

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশি-আমেরিকান সাংবাদিকেরা ছাড়াও মিশন ও কনস্যুলেটের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here