পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় গত কয়েক দিনের গরমে ভ্যাপসা গরমে ফের ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। হাসপাতাল সূত্রে জানাগেছে, গত এক সপ্তাহ ধরে প্রচন্ড রোদের তাপদাহে জনজীবন দুর্বিসহ হয়ে উঠছে। উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকায় সুপেয় পানির সংকটে নানা পানিবাহিত রোগ বাড়ছে।

হঠাৎ করে গত এক সপ্তাহ ধরে প্রত্যন্ত এলাকায় ডায়রিয়া ছড়িয়ে পড়ছে। গত এক সপ্তাহে ১৯৮ জন ডায়রিয়া রোগির চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে। গত এক মাসে হাসপাতালে ৭শত ৬১জন ডায়রিয়া ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন। সোমবার (২৪ ঘন্টায়) ৩৮জন ভর্তি হয়েছে।

হাসপাতালে প্রতিদিনই এখন ডায়রিয়া রোগি ভর্তি বাড়ছে। এমন অবস্থায় হাসপাতালে পর্যাপ্ত কলেরা স্যালাইন থাকলেও মেট্রো আইভি, সিপ্রো আইভি, ওমিপ্রাজল, ক্যানোলাসহ বিভিন্ন ওষুধ সংকট রয়েছে। ফলে গরীব ডায়রিয়া রোগীরা বাহির থেকে ওষুধ কিনতে হিমসিম খাচ্ছেন।

জানাগেছে- ইতিপূর্বে (১ সপ্তাহ পূর্বে) ধাওয়া গ্রামের মো. মোতালেব তালুকদার (৫৫) ও আবুল দোকানদার এর স্ত্রী আছিয়া বেগম (৫০) ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তাদের হাসপাতালে এসে চিকিৎসা নেয়ার তারা পূবের্ই তারা মারা যান।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এইচ এম জহিরুল ইসলাম জানান, প্রচন্ড গরম এবং ফরমালিন যুক্ত খাবার খাওয়ার কারণে সাধারণ মানুষ এ রোগে বেশী আক্রান্ত হচ্ছেন। তিনি সকলকে পঁচা-বাসি এবং ফরমালিনযুক্ত খাবার গ্রহণ থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here