পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় ত্রিশোর্ধ এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার বিকেলে উপজেলার মধ্য চড়াইল গ্রাম থেকে খড়ের স্তুপে পড়ে থাকা অবস্থায় লাশ পাওয়া যায়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে চাল,ডালসহ বাজারের ব্যাগ উদ্ধার করে পুলিশ। ধারণা করা হচ্ছে বাজার করে বাড়ি ফেরার সময় নারীকে তুলে নিয়ে যায় কেউ। এরপর ধর্ষণশেষে হত্যা করা হয়। আবার হত্যাকারীদের কেউ বাজারের ব্যাগ ফেলে পালাতে পারে বলে সন্দেহ করছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্র জানায়,ভান্ডারিয়ার মধ্য চড়াইল গ্রামের লতিফ মোল্লার পরিত্যক্ত দোকান ঘরের মেঝেতে খড়ের স্তুপ ছিল। সেখানেই রক্তাক্ত ও নগ্ন অবস্থায় নারীর লাশ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। পরে এলাকাবাসী খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে চাল, ডাল, আলু,পেয়াজ,তেল ও চানাচুর ভর্তি একটি শপিং ব্যাগ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাস্থলে ধর্ষণ ও হত্যার বেশ কিছু আলামত মিলেছে। তবে কেন ও কারা তাকে হত্যা করেছে সে বিষয়ে প্রাথমিক ধারনা মেলেনি। নিহত নারীর পরিচয় সম্পর্কেও এলাকাবাসী কিছু জানাতে পারেননি। তার দুই হাতে শাখা পড়া থাকায় লাশটি হিন্দু নারীর বলে ধারণা করা হচ্ছে।

খবর পেয়ে পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মো. হায়াতুল ইসলাম খান ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাসান মোস্তফা স্বপন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তারা স্থানীয়দের সাথে কথা বলে খুনের ঘটনা ও নিহতের পরিচয় উদঘাটনে সহায়তা চান।

ভান্ডারিয়া থানার ওসি এসএম মাকসুদুর রহমান জানান, অজ্ঞাত পরিচয় নারীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পিরোজপুর জেলা মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিচয় উদঘাটন ও খুনী শনাক্তে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here