অনলাইন ডেস্ক : পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলার একটি ব্রিজের সংযোগ সড়ক ভেঙে গিয়ে পাঁচ দিন যাবত ওই রুটের সকল যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। আর এতে ভোগান্তিতে পড়েছে প্রাথমিক-মাধ্যমিক স্কুল-কলেজগামী বিভিন্ন বয়সী শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

জানা গেছে, উপজেলার এলজিইডির আওতায় নির্মিত ইন্দুরকানি-বাগোলেরহাট সড়কের পত্তাশী বাজারে ব্রিজ সংলগ্ন একপাশের সংযোগ সড়কের ভরাট মাটি ধসে যায়। এতে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। ভোগান্তিতে পড়েছেন এ সড়কে চলাচলকারী তিনটি প্রতিষ্ঠানের শত শত শিক্ষার্থীসহ কয়েক হাজার মানুষ।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ভেঙে গিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন সড়কটি পার্শ্ববর্তী বাগেরহাট জেলার মোড়েলগঞ্জ উপজেলা ও পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলার একমাত্র সংযোগ সড়ক। এই সড়ক দিয়ে উপজেলার পত্তাশী ইউনিয়নের কয়েক হাজার মানুষ পিরোজপুর সদর, মোড়েলগঞ্জ ও বাগেরহাটসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যাতায়াত করে।

সপ্তাহের প্রতি শুক্র ও সোমবার পত্তাশী বাজারে বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন এখানে জমায়েত হন, কেনাবেচা করেন। এছাড়া, বাজার সংলগ্ন একটি প্রাথমিক, একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং কলেজ থাকায় ওইসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে সহস্রাধিক শিক্ষার্থী পড়েছে বেকায়দায়। আর এমতাবস্থায় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরাও থাকেন উদ্ভিগ্ন।

গত ৬মে সোমবার আকস্মিক ব্রিজটির পূর্বাংশের মাটি দেবে যেতে শুরু হয়ে মঙ্গলবার রাতে সড়ক থেকে ব্রিজটি সম্পূর্ণরুপে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। বন্ধ হয় যোগাযোগ।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নিজ উদ্দোগে ভাঙা অংশে গাছ দিয়ে জনসাধারণের চলাচলের ব্যবস্থা করেন।

বিষয়টি শুরুথেকেই সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রশাাসন ও প্রকৌশল বিভাগকে জানানো হয়েছে বলে জানান পত্তাশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোয়াজ্জেম হোসেন হাওলাদার।
এ ব্যাপারে ইন্দুরকানি উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী রবীন্দ্রনাথ ঢালী সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ব্রিজ সংলগ্ন সড়কের ভেঙে যাওয়া অংশ মেরামতের ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here