বরিশাল সিটি করপোরেশনের (বিসিসি) মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রবীণদের সম্মান জানিয়ে তাদের কথা চিন্তা করে বয়স্ক ভাতা চালু করেছেন। বয়স্ক ভাতার এ টাকা প্রবীণদের জন্যই নির্ধারণ করা হয়েছে। যাতে প্রকৃত বয়স্করা এ সুবিধা পান এবং ভাতা প্রদানে স্বচ্ছতা ফিরিয়ে আনতে প্রথমবারের মতো ভাতা বই চালু করা হয়েছে।

রোববার (১৮ আগস্ট) দুপুরে বরিশাল জেলা সমাজসেবা কার্যালয় চত্বরে বিসিসির আওতাধীন এলাকায় প্রবীণদের মধ্যে বয়স্ক ভাতার বই বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন। সমাজসেবা অধিদপ্তর এর অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

মেয়র বলেন, সিনিয়র সিটিজেনরা দেশের সম্মানিত ব্যক্তি। তাদের প্রতি সম্মানের জায়গা থেকেই আমরা চাই, প্রতিটি দপ্তরে তাদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা করতে। সঙ্গে মা-বোন অর্থাৎ নারীদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা রাখতে।

তিনি বলেন, আমার চিন্তা-ভাবনা রয়েছে, সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে সিনিয়র সিটিজেনদের জন্য আলাদা স্বাস্থ্যসেবা বা চিকিৎসা সহায়তা দেওয়ার। প্রবীণদের চিকিৎসার জন্য সিটি করপোরেশন থেকে যা কিছু সম্ভব করা হবে। এজন্য সময় দিতে হবে।

সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, বয়স্ক ভাতার এ টাকা নিয়ে কেউ যদি কোনো ধরনের সুযোগের সদব্যবহার করার চেষ্টা করে, তা বরদাস্ত করা হবে না।

বিসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান, বিসিসির প্যানেল মেয়র গাজী নঈমুল হোসেন লিটু, শহর সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আল মামুন তালুকদার, শহর সমাজসেবা কর্মকর্তা জাবের আহমেদ প্রমুখ।

সিটি করপোরেশনের ৩০টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১১টি ওয়ার্ডের ৫৫৬ জনের মধ্যে রোববার এ বই দেওয়া হয়।

জেলা সমাজসেবা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল শহরের ৩০ ওয়ার্ডে ১৪ হাজার একজন এ বয়স্ক ভাতা পাবেন। প্রতিজনে বছরে পাবেন ছয় হাজার টাকা। আর বরিশাল জেলায় ৮৬ হাজার ৪৬৮ জনকে বয়স্ক ভাতা দেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here