পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক শিক্ষক দম্পতির বিরুদ্ধে মান মর্যাদা হানিকর, আক্রমণাত্মক তথ্য প্রচারের অভিযোগে রুবেল চৌধুরী ওরফে অপূর্ব মাহমুদ চৌকিদার (৩০) ও মহিউদ্দীন সাগর (২৫) নামের দুই যুবককে গ্রেপ্তার করে মঙ্গলবার দুপুরে আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ। বিজ্ঞ আদালত এদের দুই জনকে পটুয়াখালী কারাগারে প্রেরণ করেন।

পুলিশ জানায়, সোমবার রাতে আসামী রুবেল চৌধুরীকে ঢাকা থেকে এবং মহিউদ্দীন সাগরকে উপজেলার লালুয়া থেকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেফতার করা হয়। এরা দীর্ঘদিন ধরে এক শিক্ষক দম্পতির বিরুদ্ধে ফেসবুকে মান মর্যাদা হানীকর, আক্রমণাত্মক, বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রচার করায় এদের বিরুদ্ধে সেই শিক্ষক দম্পতি ১১ মে জিডি দায়ের করেন।

এরপরও আসামীরা বিভিন্ন তারিখ ও সময় তাদের ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে মিথ্যা, ভিত্তিহীন নানান তথ্য উপাত্ত প্রচার করায় খেপুপাড়া সরকারী মোজাহার উদ্দীন বিশ্বাস কলেজের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মো: শাহআলম বাদী হয়ে ২৩ মে কলাপাড়া থানায় উল্লিখিত দুই আসামীসহ অজ্ঞাত ১০/১২ জনের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ২৫/২৬/২৯/৩১ ও ৩৫ ধারায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় ধানখালী এমইউ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভিকটিম সহকারী শিক্ষিকা মোসা: চারচিয়াস কলি স্বাক্ষী রয়েছেন।

মামলার বিবরনে জানা যায়, আসামী রুবেল চৌধুরী তার ফেসবুক আইডি এবং অপর আসামী মহিউদ্দীন সাগর তার ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে বিভিন্ন তারিখ ও সময় ওই শিক্ষক দম্পতি ও তার পরিবারকে অপমান, অপদস্থ এবং হেয়প্রতিপন্ন মূলক পোষ্ট প্রচার করে।

এতে সেই দম্পতির কর্মরত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সহকর্মীদের মধ্যে ঘৃণার উদ্রেক করে দীর্ঘবছর ধরে গড়ে ওঠা সম্প্রীতি বিনষ্ট করা সহ সমাজের আইন শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর উপক্রম হয়েছে।

কলাপাড়া থানার ওসি মো: জসিম জানান, আসামী রুবেল চৌধুরী ও মহিউদ্দীন সাগর আইন শৃংখলা অবনতি ঘটানোর লক্ষে অনুমতি ব্যতীত পরিচিতি তথ্য সংগ্রহ করে মান মর্যাদা হানীকর, আক্রমণাত্মক তথ্য প্রচারের দায়ে অভিযুক্ত।

এদের দু’জনকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। মামলাটি তদন্তের স্বার্থে আসামীদের নিবিড় ভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আদালতে রিমাণ্ড আবেদন করবেন বলে জানান তিনি।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here