বরগুনায় ছোট ভাইয়ের স্ত্রী কাজল রানীকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সকাল ৭ টায় সদর উপজেলার ঢলুয়া ইউনিয়নের রায়ভোগ গ্রামে।

 

এ ঘটনায় কাজল রানীর স্বামী দিনেশ চন্দ্র বাদী হয়ে বড় ভাই বিকাশ চন্দ্র ও তার ছেলেসহ ৬ জনকে আসামী করে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার বিবরনে জানা জায়, ঘটনার দিন সকালে মামলার বাদী দিনেশ চন্দ্রের বাবা বিমল চন্দ্রের সাথে গাছ কাটা নিয়ে একই বাড়ীর খোকন হাওলাদারের সাথে তর্ক বিতর্ক হয়।

 

তর্ক বিতর্কের এক পর্যায়ে দিনেশ চন্দ্রের বাবা বিমল চন্দ্রকে আসামী খোকন, রতন, বিকাশ, পরিতোষ, রবিন্দ্র ও শোভা রানী রামদা, শাবল, ও লাঠিসোটা নিয়ে দলবদ্ধ হয়ে মারতে আসে। এ সময় দিনেশ চন্দ্রের স্ত্রী কাজল রানী (তার শ্বশুর) বিমল চন্দ্রকে রক্ষা করার জন্য এগিয়ে আসলে আসামীরা এলোপাথারিভাবে কাজল রানীকে পিটাতে থাকে।

 

এক পর্যায়ে আসামী রতন তার হাতে থাকা রামদা দিয়ে কাজল রানীর মাথায় আঘাত করলে কাজল রানী রক্তাক্ত জখম হয়। পরে প্রতিবেশীরা কাজল রানীকে মূমুর্ষু অবস্থায় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে বরগুনার জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বরগুনা সদর থানার এসআই ওবায়দুর ররহমান জানান, ৬ জনকে আসামী করে মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here