????????????????????????????????????

দেশ ও জাতীর অগ্রগতি এবং মুসলিম উম্মার শান্তি কামনায় দোয়া মোনাজাতের মধ্য দিয়ে বরিশালে ঈদের প্রধান জামাত নগরীর হেমায়েত উদ্দিন ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (০৫ জুন) সকাল সাড়ে ৮টায় অনুষ্ঠিত জামাতে ইমামতি করেন জামে এবায়দুল্লাহ মসজিদের খতিব মাওলানা নূরুর রহমান বেগ।

হেমায়েত উদ্দিন ঈদগাহে নামাজ আদায় করেন সিটি করপোরেশন মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ্, জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টুসহ বরিশালে রাজনৈতিক, প্রশাসনের সর্বোচ্চ ব্যক্তি, বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

এছাড়াও জেলায় বৃহত্তর ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় বরিশাল সদর উপজেলার চরমোনাই দরগাহ শরীফ ও উজিরপুরের গুঠিয়া বায়তুল আমান জামে মসজিদে।

এদিকে নগরের বেশ কয়েকটি মসজিদে দু’টি করে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। দ্বিতীয় জামাতের মধ্যদিয়ে বরিশাল নগরের সর্বশেষ ঈদের জামাত সকাল ১০টায় কেন্দ্রীয় জামে কশাই মসজিদ, বায়তুল মোকাররম জামে মসজিদ ও জামে এবায়েদুল্লাহ মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়।

পাশাপাশি এ মসজিদগুলোর মধ্যে কেন্দ্রীয় জামে কশাই মসজিদ ও জামে এবায়েদুল্লাহ মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায় এবং বায়তুল মোকাররম জামে মসজিদ সকাল ৯টায় প্রথম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া সকাল সাড়ে ৭টায় প্রথম ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় নগরের আমানতগঞ্জ ঈদগাহ ময়দানে। এরপর সকাল ৮টায় নগরের সাগরদী মাদ্রাসা জামে মসজিদ, নথুল্লাবাদ মাদ্রাসা মসজিদ, গোরস্থান ঈদগাহ ময়দান, বাজাররোড মাদ্রাসা মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল সাড়ে ৮টায় ব্রাউন কম্পান্ড জামে মসজিদ, সাগরদী বাজার জামে মসজিদ, নূরিয়া হাইস্কুল জামে মসজিদ, মেডিকেল কলেজ সেন্ট্রাল মসজিদ, ওয়াপদা জামে মসজিদ, পাওয়ার হাউজ জামে মসজিদ, বাস টার্মিনাল কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ ও জেলাস্কুল জামে সমজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৯টায় পোর্টরোড জামে মসজিদ, ল’কলেজ জামে মসজিদ ও ফকিরবাড়ি জামে মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া সকাল সাড়ে ৮টায় ও সাড়ে ৯টায় দু’টি পৃথক ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় পুলিশ লাইন জামে মসজিদে।

জাতীয় ইমাম সমিতি বরিশাল মহানগর শাখার সভাপতি মাওলানা কাজী আব্দুল মান্নান জানান, এর বাহিরে বরিশাল মহনগরে সাড়ে ৪শ মসজিদ রয়েছে। এর মধ্যে ৩ শতাধিক মসজিদে ঈদের জামাত সকাল ৮টা থেকে ৯টার মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে বিভাগের দ্বিতীয় বৃহৎ ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় পিরোজপুরের নেছারাবাদ ছারছিনা দরবার শরীফ মাঠে। পাশাপাশি ঝালকাঠীর এনএফ কামিল মাদ্রাসা ময়দান (কায়েদ সাহেব হুজুরের দরবার), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ মরহুম হযরত ইয়ারউদ্দিন খলিফা (র.) দরবার শরীফে বৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

ঈদ ও ঈদের জামাতকে ঘিরে পুরো বরিশালজুড়ে নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। যে নিরাপত্তার দায়িত্বে পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের পাশাপাশি র‌্যাব ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা নিয়োজিত ছিলো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here