বরিশালে এক সন্তানের জননীকে নিয়ে লাপাত্তা এইচ এম রায়হান রাফি নামে এক পুলিশ কনস্টেবল। শহরের কাউনিয়া ব্রাঞ্চ রোডের বাসিন্দা মো. কামাল হোসেনের স্ত্রী সুমনা ইসলাম সোমা পুলিশ সদস্য’র হাত ধরে পালিয়ে গেছেন। তবে এসময় স্বামীর নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কারও নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ রয়েছে। ভোলার বোরহানউদ্দিন থানায় কর্মরত এইচ এম রায়হান রাফি’র সাথে চাকরিজীবির স্ত্রীর পরকীয়া সম্পর্ক ছিল।

শুক্রবার (০৬ সেপ্টেম্বর) বিকেলে এক সন্তানের জননী স্বামীর সংসার ছেড়ে প্রেমিকের হাত ধরে বাসা থেকে বেরিয়ে যান।

এই ঘটনায় তার স্বামী কামাল হোসেন সংশ্লিষ্ট বরিশাল মেট্রোপলিটন কাউনিয়া থানায় একটি অভিযোগ করেছেন। পুলিশ ইতিমধ্যে নারী উদ্ধারে মাঠে নেমেছে বলেও জানা গেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়- ২০১৫ সালে ১২ জুন সুমনা ইসলাম সোমার সাথে চাকরিজীবির আনুষ্ঠানিক বিবাহ সম্পন্ন হয়। পরবর্তীতের তাদের এক কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। বর্তমানে মেয়েটির বয়স ৩ বছর। স্বামী কামাল হোসেন রাজধানীতে চাকরি করার কারণে সুমনা ইসলাম সোমা বাড়িতে শ্বশুর পরিবারের সাথে ছিলেন।

কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে তার সাথে পুলিশ কনস্টেবল এইচ এম রায়হান রাফি’র পরিচয়ের সূত্র ধরে হৃদয়ঘটিত সম্পর্ক তৈরি হয়। সাম্প্রতিকালে এই বিষয়টি জানাজানি হলে কামাল হোসেন স্ত্রীকে বকাঝকাও করেন। সেই ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে এইচ এম রায়হান রাফি তাকে বিভিন্ন সময়ে হুমকিও দেন।

কামাল হোসেন অভিযোগে উল্লেখ করেছেন- সোমা তার বাসা থেকে নগদ টাকা স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে গেছে।’

অভিযোগের বিষয়টি স্বীকার করে বরিশাল মেট্রোপলিটন কাউনিয়ার ওসি আনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন- বিষয়টি তদন্তের পাশাপাশি নারীকে আটকে পুলিশ মাঠে নেমেছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here