আজ ১৬ জুলাই বিকেল ৪ টার দিকে জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বরিশাল এর সার্বিক নির্দেশনায় বরিশাল নগরীর লাইন রোড ও পুলিশ লাইন রোড এলাকায় কেবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন বাস্তবায়নের পাশাপাশি ‘বিদেশি টিভি চ্যানেলে অবৈধ বিজ্ঞাপন সম্প্রচার ও স্থানীয় কেবল নেটওয়ার্কে সিনেমা ও বিজ্ঞাপন প্রদর্শন বন্ধ করা এবং কেবল নেটওয়ার্কে চ্যানেলের ক্রমে রাষ্ট্রীয় চ্যানেলের পর সম্প্রচারের তারিখ অনুযায়ী দেশি বেসরকারি চ্যানেলগুলোকে রাখা নিশ্চিত করতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়।

মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সাব্বির আহমেদ। এসময় লাইন রোডে স্কাই ভিষণ ক্যাবল নেটওয়ার্কে অভিযান চালিয়ে দেখা যায় স্কাই ভিষণ তথ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ মোতাবেক টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন ২০০৬ অনুযায়ী তারা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। অপরদিকে ইউরোটেল বিডি নেটওয়ার্ক এর কার্যালয় পরিচালনা করে তাদের সম্প্রচার কার্যক্রম টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন ২০০৬ অনুযায়ী পরিচালিত হচ্ছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপ-পরিচালক বিভাগীয় তথ্য অফিস বরিশাল, মুহাম্মদ হামীরুল আজম, সহকারী তথ্য অফিসার, বিভাগীয় তথ্য অফিস বরিশাল, আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ সদস্যরা।

এই অভিযান জনস্বার্থে অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট। দেশে মোট ছয় হাজার ক্যাবল অপারেটর আছে –দেশে ৩৩টি টিভি চ্যানেল অনইয়ারে আছে এবং অনুমোদনের অপেক্ষায় আরো অনেক গুলো। বাংলাদেশের ‘ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন, ২০০৬’ এর উপধারা-১৯(১৩) এর বিধান মতে বাংলাদেশে বিদেশি টিভি চ্যানেলের মাধ্যমে কোনো ধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা যায় না। শুধু দেশীয় বিজ্ঞাপন নয়, কোনো ধরনের বিজ্ঞাপন দেখানো যায় না।

ভারতীয় জনপ্রিয় জি নেটওয়ার্কের সব চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ হলো বাংলাদেশে। কেবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন, ২০০৬’ এর উপধারা-১৯(১৩) এর বিধান মতে বাংলাদেশে বিদেশি টিভি চ্যানেলের মাধ্যমে কোনো ধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা যায় না। শুধু দেশীয় বিজ্ঞাপন নয়, কোনো ধরনের বিজ্ঞাপন দেখানো যায় না। একই ধরনের আইন ভারত, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের অন্যান্য দেশে কর্যকর আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here