বরিশালে মাসব্যপি ভ্যাপসা গরমের পর ক্ষনিকের জন্য বৃষ্টির দেখা আসায় স্বস্তি পেয়েছে নগরবাসী। অপরদিকে রাস্তায় জলাবদ্ধতার কারনে কয়েকশত শিক্ষক পরিক্ষার্থীদের চরম দূর্ভোগ পোহাতে হয়েছে।

আজ শুক্রবার সকাল থেকে বরিশালে প্রচন্ড ভ্যাপসা গরমে মানুষ যখন অতিষ্ট হয়ে উঠেছে ঠিক তখনই সকাল ১১টা ১০ মিনিটের দিকে মুসলধারে বৃষ্টি না হলেও মাঝারি ধরনের বৃষ্টি পড়তে শুরু করে।

হঠাৎ করে বৃষ্টির দেখা মেলায় দিন মজুর ও পথচারীদের কিছুটা কাজে-কর্মে বিঘ্ন ঘটলেও তারপরে দেখা গেছে তাদের মাঝে কিছুটা স্বস্তির পরশ পড়েছে।

এসময় কয়েকজন ভ্যান চালক ও রিকসাচালকরা বলেন- এতদিন যে গরমে কষ্ট করেছি আজকের সামান্যতম বৃষ্টি হয়েছে তাতে মনে হয় কয়েক বছরের শান্তি মনের ভিতর বাসা বেধেছে।

অপরদিকে মাত্র ৪৫ মিনিটের বৃষ্টিতে বরিশাল সাংবাদিক মইনুল হোসেন ও সরকারী মহিলা কলেজের সড়কটিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে যায়।

এদিকে সরকারী মহিলা কলেজে শিক্ষক নিয়োগ পরিক্ষা দিতে আসা কয়েকশত শিক্ষার্থী পরিক্ষা শেষে একদিক মাথার উপর বৃষ্টি অপরদিকে সড়কে জলাবদ্বতা পেড়িয়ে তাদের ফিরতে দেখা যায়।

বিভিন্ন উপজেলা থেকে আসা পরিক্ষা দিতে আসা এবং ফিরে যাবার সময়ে শিক্ষার্থীরা এসময় মন্তব্য করে বলেন- একদিকে প্রেসক্লাব অপরদিকে সরকারী মহিলা কলেজ থাকার পরও তাদের রাস্তার এই করুন দশা এর আমাদের উপজেলার গ্রামের রাস্তা অনেক ভাল সেখানে বৃষ্টির পানি জমে থাকে না।

এবিষয়ে এলাকাবাসী বলেন- সামান্য বৃষ্টি হলে আমাদের কথা বলে আর কি লাভ হবে আপনাদের প্রেস ক্লাব অন্যদিকে একটি সরকারী মহিলা কলেজ থাকা সত্বেও কোন আমলেই কেহ এই সড়কটির দিকে সুনজর দেইনি।

অনেক অভিযোগ দিয়েছি কোন প্রতিকার পাই নাই তাই এখন আর বলি না। বলে লাভ কি?

আজকের বৃষ্টির বিষয়ে বরিশাল আবহাওয়া অফিসে যোগাযোগ করা হলে অবজারভার রুবেল বলেন- সকাল ১১,১০ মিনিট থেকে বেলা ১২ টা পর্যন্ত ২৭ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ডপাত করা হয়েছে।

আষাড় মাস হলেও সেই মাসের কোন প্রমান তারা পাচ্ছেন না। এখন মৌসুমী বায়ূ সক্রিয় থাকার কারনে মাঝে মধ্যে বৃষ্টির সম্ভবনা রয়েছে আগামী দু একদিনের মধ্যে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here