বরিশালসহ উপকূলীয় ১৩ জেলায় শুরু হয়েছে বিশেষ অভিযান ‘কম্বিং অপারেশন-২০২০’। এরই ধারাবাহিকতায় বরিশাল জেলা প্রশাসন, নৌ-পুলিশ এবং মৎস্য অধিদপ্তরের যৌথ অভিযানে ৫০ হাজার মিটার অবৈধ জাল জব্দ এবং পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। আজ ২৫ জানুয়ারী সকাল ৯ টা থেকে বেলা সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত চলে এই অভিযান।

 

 

বরিশাল জেলার কামারপাড়া, শায়েস্তাবাদ ও মীরগঞ্জ উপকূলীয় অঞ্চলে বিশেষ অভিযান ‘কম্বিং অপারেশন-২০২০’ পরিচালনা করা হয়। অভিযান পরিচালনায় নেতৃত্ব প্রদান করেন জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নাজমূল হুদা। আটককৃত ২ জনকে কারেন্ট জালসহ হাতেনাতে ধরা হয় এবং ১২০০০০ মিটার কারেন্ট জাল ও ৫০০০ মিটার চরঘেড়া জাল উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।

 

মৎস্য কর্মকর্তা(ইলিশ) প্রসিকিউসন অফিসার হিসাবে অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগ আমলে নিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নাজমূল হুদা দণ্ডবিধি ১৮৬০ এর ১৮৮ ধারা অনুযায়ী ২ জন প্রত্যেককে ১০ দিন মেয়াদে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

এ সময় নৌ-পুলিশের বরিশাল সদর নৌ-থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল্লাহ আল মামুন, কোস্টগার্ডের বেলায়েত হোসেন সিপিও(সিডি) ও অন্যান্যরা সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করেন।

 

অভিযান শেষে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জানান যে বরিশালসহ উপকূলীয় ১৩ জেলায় শুরু হয়েছে বিশেষ অভিযান ‘কম্বিং অপারেশন-২০২০’।

 

মৎস্য সম্পদ ধ্বংসকারী বেহুন্দী ও অন্যান্য অবৈধ জাল নির্মূলের লক্ষ্যে মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুসারে প্রথম ধাপে ৭ থেকে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত অভিযান পরিচালিত হয়েছে এবং দ্বিতীয় ধাপে ২১ থেকে ২৮ জানুয়ারি এই অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। জেলা প্রশাসক এস, এম, অজিয়র রহমানের নির্দেশনায় এ অভিযানকে সফলভাবে পরিচালনা করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here