দেশের বিভিন্ন এলাকায় ২০টি হাইটেক পার্ক নির্মাণের জন্য জমি বরাদ্দ করা হয়েছে। সম্প্রতি এ-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

বরাদ্দকৃত জায়গাগুলোর মধ্যে বরিশালে রয়েছে দুটি হাইটেক পার্ক। এর মধ্যে একটি হলো আইটি পার্ক। এজন্য জমি বরাদ্দ করা হয়েছে ৪ দশমিক ১৮ একর। অন্যটি হলো সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক, বরিশাল (শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার)। এর জন্য ২ দশমিক ৫১ একর জমি বরাদ্দ করা হয়েছে। সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় হচ্ছে ৩টি হাইটেকের মধ্যে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্ক’-এর জন্য জমি বরাদ্দ করা হয়েছে ১৫৩ দশমিক ৮৩ একর; সফওয়্যার টেকনোলজি পার্কের জন্য ৪ একর ও আইটি পার্কের জন্য ৫ একর জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে সিলেটের কোম্পানিগঞ্জে নির্মাণাধীন হাইটেক পার্কের আইটি বিজনেস সেন্টার এবং ব্রিজ নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন ও পরিদর্শনে সারা দেশে ২৮টি হাইটেক পার্ক নির্মাণের কথা জানান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

পলক সে সময় সাংবাদিকদের জানান, দেশে প্রতি বছর সাড়ে তিন কোটি মোবাইল ফোন এবং পাঁচ লাখ ল্যাপটপ আমদানি করতে হয়, যার জন্য খরচ হয় প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা। হাইটেক পার্ক নির্মাণ হলে দেশেই মোবাইল ফোন এবং ল্যাপটপ উৎপাদন সম্ভব হবে। এতে দেশের এক বিলিয়ন ডলার সাশ্রয় হবে।’

প্রতিমন্ত্রী জানান, সরকারের রূপকল্প ২০২১ ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অংশ হিসেবে বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ে হাইটেক পার্ক এবং সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here