অনলাইন ডেস্ক// বরিশালের এক পরীক্ষার হল থেকে প্রশ্নপত্র গায়েবের ঘটনা ঘটেছে। প্রশ্নপত্র গায়েবের ঘটনায় এসএসসি পরীক্ষার এক কেন্দ্রসচিবসহ দুই শিক্ষককে দায়িত্ব পালন থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারী) অঙ্ক পরীক্ষা চলাকালে বরিশাল সদর উপজেলার চন্দ্রমোহন আরএম একাডেমি মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন শেষে শিক্ষাবোর্ড কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত দেয়।

দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি পাওয়া দুই শিক্ষক হলেন- চন্দ্রমোহন আরএম একাডেমি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্রসচিব মকবুলুর রহমান এবং একই বিদ্যালয়ের গণিত বিষয়ের শিক্ষক মাসুম বিল্লাহ।

শিক্ষা বোর্ডের সচিব অধ্যাপক বিপ্লব কুমার ভট্টাচার্য বলেন, অংক পরীক্ষা শুরুর পর ওই কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়ে দেখতে পাই একজন পরিদর্শক দুই থেকে তিনটি কক্ষের দায়িত্ব পালন করছেন। এ সময় পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নপত্র গুনে দেখি দুটি প্রশ্নপত্র কম। বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রসচিবকে চ্যালেঞ্জ করা হলে তিনি একটি প্রশ্ন বের করে দেন প্রশ্নপত্রের খাম থেকে।

বিপ্লব কুমার বলেন, কেন্দ্র ত্যাগের সময় এক যুবককে কিছু বই-খাতা নিয়ে অবস্থান করতে দেখি। তাকে চ্যালেঞ্জ করা হলে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ সময় আমাদের টিম গাড়ি নিয়ে ওই যুবকের পিছু নিলে দেখা যায় একটি কিন্ডার গার্টেনের দিকে যাচ্ছে। সেখানে অভিযান চালানো হলে আরও কয়েক যুবক পালিয়ে যায়। পরে ওই কিন্ডার গার্টেনে তল্লাশি চালিয়ে কিছু নোট-শিট পাওয়া যায়। যার একটিতে শিক্ষক মাসুম বিল্লাহর নাম ছিল। এমন পরিস্থিতিতে বোর্ডের টিম ফের ওই কেন্দ্রে গিয়ে সচিব ও কক্ষ পরিদর্শককে পরীক্ষার সব দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয় বলেও জানান শিক্ষা বোর্ডের সচিব অধ্যাপক বিপ্লব কুমার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here