বীমা দিবসে শপথ করি, উন্নত দেশ গড়ি এই স্লোগান কে সামনে রেখে আজ ১ মার্চ রোববার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসন বরিশাল এর আয়োজনে নগরীর সার্কিট হাউস প্রাঙ্গন বেলুন ফেস্টুন উড়িয়ে জাতীয় বীমা দিবসের শুভ উদ্বোধন করেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) এবং জেলা প্রশাসক বরিশাল। সেখাল থেকে একটি বণার্ঢ্য র‌্যালি বের হয়ে নগরীর সদর রোড হয়ে অশ্বিনী কুমার হল চত্বরে এসে শেষ হয়। পরে দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য নিয়ে অশ্বিনী কুমার হলে আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণী ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) জাকারিয়া। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বরিশালের জেলা প্রশাসক এস, এম, অজিয়র রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ-পরিচালক স্থানীয় সরকার বরিশাল মোঃ শহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) বরিশাল শহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) বরিশাল তৌহিদুজ্জামান পাভেল, সিনিয়র সহসভাপতি জেলা আওয়ামীলীগ বরিশাল মোঃ হোসেন চৌধুরী, বীর প্রতীক কে এস এম মহিউদ্দিন মানিক, সভাপতি বরিশাল মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাব আবুল কালাম আজাদ, সহকারী জেনারেল ম্যানেজার জীবন বীমা কর্পোরেশন বিপ্লব কুমার দাস, আহ্বায়ক ইন্স্যুরেন্স এসোসিয়েশন বরিশাল আবদুল হালিম খান সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সসহ বীমার সাথে সংশ্লিষ্ট প্রায় ৩২ টি লাইফ, নন লাইফ ইন্সুইরেন্স কোম্পানীর কর্মকর্তা কর্মচারি বৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে বীমা মেলার আয়োজন করা হয়। ফিতা কেটে মেলার উদ্বোধন করেন অতিথিরা মেলায় ১০ টি লাইফ, নন লাইফ ইন্সুইরেন্স কোম্পানীর স্টল ছিলো। অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) বরিশাল বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৬০ সালের ১ মার্চ তৎকালীন পাকিস্তানের আলফা ইনস্যুরেন্স কম্পানিতে যোগ দিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর বীমা খাতে যোগদানের দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে গত ১৫ জানুয়ারি আইডিআরএর অনুরোধে ১ মার্চকে জাতীয় বীমা দিবস ঘোষণা করেছে সরকার। আজ থেকে প্রতি বছর এই দিনটা উদযাপন করা হবে। আলোচনা সভা শেষে “বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বির্নিমানে বীমার গুরুত্ব’ রচনা প্রতিযোগীতায় উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের বিজয়ী তিন জন শিক্ষার্থীকে পুরস্কৃত করা হয়। পরিশেষে মনোজ্ঞ এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here