বরগুনা সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত অবস্থায় চিকিৎসক ডা: মশিউর রহমানের ওপর হামলার প্রতিবাদে বরিশালে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে চিকিৎসকরা। আজ সোমবার বেলা ১১ টায় বাংলাদেশ মেডিকেল এ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) বরিশাল জেলা ও শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ এবং হাসপাতালের সর্বস্থরের চিকিৎসকদের উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে বান্দরোডে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভার সভাপতিত্ব করেন বিএমএ বরিশাল জেলা শাখার সভাপতি ডাঃ মোঃ ইসতিয়াক হোসেন।

এছাড়া ডা: মশিউর রহমানের ওপর হামলাকামীদের দৃষ্টান্তমুলক বিচারের দাবী জানিয়ে বক্তব্য রাখেন- বিএমএ বরিশাল জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক ডাঃ মোঃ মনিরুজ্জামান শাহিন, শেবাচিম হাসপাতালের আউটডোর ডাক্তারস্ এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডাঃ সৌরভ সুতার, সাধারণ সম্পাদক ডাঃ নূরুন্নবি তুহিন, সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ মোস্তফা কামাল, ডাঃ শিরিন সাবিহা তন্নি, ডাঃ মেহেদী হাসান বিপ্লব প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, চিকিৎসকদের এখন নিরাপত্তা নেই। কারণে-অকারণে তার হামলার শিকার হচ্ছেন। চিকিৎসকদের যদি সমাজ সম্মান দিতে না পারে তাহলে এ দেশে ভালো চিকিৎসা সম্ভব নয়। বর্তমান সরকারের স্বাস্থ্য খাতের যা কিছু অর্জন তা দেশে এবং আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। আর এসব কিছুই এসেছে চিকিৎসক আর স্বাস্থ্যকর্মীদের হাত ধরে। তাই চিকিৎসকদের উপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেয়া প্রয়োজন।

উল্লেখ্য. গত ১৯ জুন বুধবার রাতে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে আব্দুল্লাহ (১৪) নামের এক রোগী ভর্তি হয়। সে বরগুনা জেলা স্কুলের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী। বমির পাশাপাশি আব্দুল্লাহর রক্তচাপ আকস্মিকভাবে কমে আসায় তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে দ্রুত বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেন ডা. মশিউর রহমান।

কিন্তু অসুস্থ আব্দুল্লাহকে বরিশাল না নিয়ে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে অবস্থান করায় রাত ১২টার দিকে আব্দুল্লাহর মৃত্যু হয়। এর পর পরই রোগীর স্বজনরা কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মশিউর রহমানের ওপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় লাঞ্ছিত চিকিৎসক ডা. মশিউর রহমান বাদী হয়ে গত ২১ জুন মৃত আব্দুল্লাহর বড় ভাই সাইফুল ইসলাম সহ অজ্ঞাত আরো চারজনকে আসামী করে একটি মামলা করলে পুলিশ ১ জনকে আটক করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here