বরিশালের আগৈলঝাড়ায় একমাত্র আদরের ছোট বোনের বিয়েতে থাকা হলো না ভাইয়ের। সড়ক দূঘর্টনায় নিভে গেলে রবিউল সরদার (৩০) এর প্রান। বিয়ে বাড়িতে আনন্দের পরিবর্তে বইছে শোকের মাতন। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গৈলা ইউনিয়নের উত্তর শিহিপাশা গ্রামের দরিদ্র ভ্যান চালক লোকমান সরদারের দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

 

একমাত্র মেয়ে সোনিয়া আক্তারের আগামী ১২ জানুয়ারী বিয়ের দিন ধার্য ছিল। একমাত্র আয়ের বড় ছেলে রবিউল সরদার ঢাকা থেকে বোনের বিয়ের বাজার নিয়ে নিজ গ্রাম আগৈলঝাড়ার উত্তর শিহিপাশা আসার জন্য ঢাকা থেকে বুধবার বিকেলে রওয়ানা দেন। ফেরি পার হয়ে মাইক্রোবাসে আগৈলঝাড়ার উদ্যেশে রওয়ানা হয়। পথে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার কুতুবপুর এলাকায় বুধবার রাতে মাইক্রো ও এসএ ট্রাভেলস নামে যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংর্ঘষ হয়।

 

 

ওই মাইক্রোবাসের যাত্রী আগৈলঝাড়ার উত্তর শিহিপাশা গ্রামের রবিউল সরদার ঘটনাস্থলে মারা যায়। আগামী ১২জানুয়ারী তার বোন সোনিয়ার বিয়েতে থাকা হলো না। ওই বিয়ে বাড়িতে আনন্দের পরিবর্তে বইছে শোকের মাতন। এলাকার শত শত লোকজন ছুটে আসছেন ওই বাড়িতে। ওই গাড়িতে থাকা একই উপজেলার পতিহার গ্রামের হাফিজুল গোমস্তার ছেলে শাকিল গোমস্ত (২৮) ও মারা যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here