???????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????????

বরিশাল নগরীর ১৩ নং ওয়ার্ড সি এন্ড বি পুল সংলগ্ন বাইতুল আমান মিরা বাড়ি জামে মসজিদের নির্মাণ কাজে বাধা দিয়ে সাড়ে তিন লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করেছে সন্ত্রাসীরা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে । মসজিদ কমিটির সভাপতি এডভোকেট আবুল খায়ের শফিউল্লাহর নেতৃত্বে নির্মাণ কাজে বাধা

দেওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে স্থানীয় ও মসজিদের মুসুল্লিরা। আজ শুক্রবার (৩০এপ্রিল) জুম্মার নামাজ বাদ মসজিদের সামনে সি এন্ড বি রাস্তায় এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
গত শুক্রবার (২৩এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১ টায় সন্ত্রাসীরা মসজিদ নির্মাণের কাজে বাধা প্রদান করে। এ নিয়ে বুধবার (২৮এপ্রিল) কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার (২৩এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১ টায় দক্ষিণ আলেকান্দা কাজীপাড়া এলাকার বাসিন্দা মৃত সৈয়দ আবুল কালাম শিকদারের ছেলে রেজাউল করিম ইমন, আবুল খায়েরের ছেলে সৈয়দ আবুল বরকত, আহমেদ কবির রুমান এবং ইসরাত আরা সখি সহ অজ্ঞাত চার-পাঁচজন সন্ত্রাসীরা উপস্থিত হয়ে মসজিদের নির্মাণ কাজ  কাজ বন্ধ করে দেয়। এ সময় মসজিদের কাজের মিস্ত্রী লেবারদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং সাড়ে তিন লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। টাকা না দিলে মসজিদের নির্মাণ কাজ করতে দেওয়া হবে না বলে হুমকি দিয়ে চলে যায়।
এদিকে মসজিদের কাজ বন্ধ থাকায় স্থানীয় মুসল্লীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে মানববন্ধনে উপস্থিত হয়েছেন।
এসময় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন মসজিদ কমিটির সভাপতি এডভোকেট আবুল খায়ের শফিউল্লাহ, কোষাধক্ষ্য মোঃ দেলোয়ার হোসেন সিকদার, সহকারি কোষাধক্ষ্য মোঃ নাসির উদ্দিন। আরো উপস্থিত ছিলেন মোঃ দুলাল মুন্সি, মোঃ আসাদ আকন, মোঃ হাফিজ সিকদার, মোঃ পারভেজ সিকদার, মোঃ আরিফ শিকদার, মোঃ শাহাবুদ্দিন সাবু, মোঃ ফিরোজ সিকদার, মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, মোঃ কবির শিকদার, মোঃ রনি হাওলাদার, মোঃ লাইজুর রহমান রিয়াজ সহ দুই শতাধিক মুসল্লীরা। মসজিদের নির্মাণকাজ পুনরায় চালু করার দাবি করেন তারা। এ সময় উপস্থিত ডিউটিরত পুলিশ কর্মকর্তা এসআই এনায়েত হোসেন বলেন, মানববন্ধনের কোন ধরনের অপ্রীতিকর অবস্থা যাতে না ঘটে এজন্য আমরা উপস্থিত হয়েছি।
এ বিষয়ে কতোয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ নুরুজ্জামান (ওসি) জানান, এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনা তদন্ত করে আইনগত অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here