বরিশালের বাকেরগঞ্জে ফয়সাল আহমেদ প্রিন্স(২৬) নামে এক ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল চালককে পিটিয়ে হত্যা করে মোটরসাইকেল ও তার সাথে থাকা মোবাইল ফোন ছিনতাই করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় ৯ শ্রমিককে আটক করেছে থানা পুলিশ। পাশাপাশি ছিনতাই হওয়া মোটরসাইকেল ও মোবাইল ফোনও উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৫ মার্চ) ভোর রাত ৪টার দিকে উপজেলার গারুরিয়া ইউনিয়নের খরাবাদ গ্রামের একটি দোকানের পেছন থেকে নিহত যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত প্রিন্স ওই গ্রামের নুর ইসলাম হাওলাদারের ছেলে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাকেরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. ফয়েজ আহমেদ জানান, প্রিন্সের গ্রামের পাশের বাড়িতে টিউবওয়েল বসানোর কাজ চলছে। রাতে সেখান থেকে প্রিন্স বাড়ি ফেরার সময় ওই শ্রমিকরা তাকে পিটিয়ে হত্যা করে। পরে তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ও মোবাইল ফোন নিয়ে মরদেহ দোকানের পাশে ফেলে যায় তারা। খবর পেয়ে রাত ৪টার দিকে পুলিশ প্রিন্সের মরদেহ উদ্ধারে করে।

তিনি আরও জানান, প্রিন্সকে পিটিয়ে ও ভারী কিছু দিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। এতে তার মাথা থেঁতলে গেছে ও তার শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত রয়েছে।

বাকেরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আ স ম মাসুদুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় প্রকৃত দোষী চারজনকে গ্রেফতার দেখানো হচ্ছে। বাকিদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেওয়া হবে। তাছাড়া হত্যাকারী চারজনের মধ্যে রাসেল নামে একজনের কাছ থেকে নিহত প্রিন্সের মোবাইল ফোন ও মোটরসাইকেলটি উদ্ধার হয়েছে। যেখানে টিউবওয়েল স্থাপনের কাজ চলছে সেখান থেকেই।

তিনি আরও বলেন, গ্রেফতার চারজন হত্যার কথা স্বীকার করে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে নেশার টাকার যোগান দিতে প্রিন্সকে হত্যা করে তার মোবাইল ও মোটরসাইকেল ছিনতাই করে। তবে বিষয়টি আরো ভালোভাবে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি এ ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here