বরিশালের উজিরপুরে মায়ের সাথে অভিমান করে গঙ্গা মন্ডল (১৭) নামে এক কলেজ ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। রোববার দুপুরে উপজেলার জল্লা ইউনিয়নের কারফা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত গঙ্গা ওই গ্রামের সৈলান মন্ডলের মেয়ে ও স্থানীয় জল্লা ইউনিয়ন আইডিয়াল কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানা গেছে, শিক্ষার্থী গঙ্গা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির পর থেকেই লেখাপড়ায় আগের তুলনায় অনেকটা অমনোযোগী হয়ে পড়ে। সারাক্ষণ শুধু মোবাইল ফোন নিয়ে এদিক সেদিক ঘুরে বেড়াতো। এসব বিষয় নিয়ে রোববার দুপুরে ওই কলেজ ছাত্রীকে তার মা গালমন্দ করে ও মেবাইল ফোন চালাতে নিষেধ করলে একপর্যায়ে মায়ের সাথে ঝগড়া হয় গঙ্গার। পরে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পরিবারের সবার চোখ ফাঁকি দিয়ে গোঁয়ালঘরের আঁড়ার সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে শিক্ষার্থী গঙ্গা মন্ডল।

কিছুক্ষণ পরে গোঁয়ালঘর পরিষ্কার করতে গিয়ে মেয়ে গঙ্গাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে তার মা ডাক-চিৎকার দেয়। এ সময় প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে গঙ্গাকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

উজিরপুর মডেল থানার এসআই আব্দুর রব বলেন, ‘কলেজ ছাত্রী গঙ্গার আত্মহত্যার প্রকৃত কারণ জানা যায়নি। তবে সে লেখাপড়ায় অমনোযোগী হওয়ায় মা বকাঝকা করেছিলো এবং সেজন্য মায়ের সাথে অভিমান করে ওই শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে বলে পরিবার থেকে জানানো হয়েছে। এ ঘটনায় তার বাবা-মা থানায় কোনো অভিযোগ করবে না বলে জানিয়েছেন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here