বরিশাল নগরীর কাশিপুর ফিসারী রোডের একটি ফ্লাট থেকে মিলি ইসলাম (২৫) নামে এক ছাত্রীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি বিএম কলেজের হিসাব বিভাগের মাস্টার্সের শেষ বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ফিসারী রোডের ডা. আলী আজিমের ভবনের ৪ তলার ফ্লাটবাসা থেকে মিলি ইসলামের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

মিলি বরিশালের উজিরপুর উপজেলার জুগীকাঠি এলাকার মৃত আবুল কালাম আকনের মেয়ে।

বিমানবন্দর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম মাহবুব উল আলম জানান, মিলি ইসলাম নিজেকে বিবাহিত পরিচয় দিয়ে গতকাল বিকেলে ডা. আলী আজিমের ভবনের ৪ তলার একটি ফ্লাট ভাড়া নেন। গতকালই ওই ফ্লাটে ওঠেন। ভাড়া নেয়ার সময় ভবন মালিককে জানান, পুলিন নামের এক স্কুলশিক্ষকের সঙ্গে সম্প্রতি তার বিয়ে হয়েছে। সকালে ওই ফ্লাটে সাড়া শব্দ না পেয়ে ভবন মালিক আলী আজিম পুলিশে খবর দেয়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পুলিশ গিয়ে ফ্লাটের দরজা খুলে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় তার মৃতদেহ দেখতে পায়। পরে পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

ওসি এস এম মাহবুব উল আলম জানান- মিলি ইসলামের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে তার গৃহশিক্ষক ছিলেন পুলিন। একপর্যায়ে মিলির সঙ্গে পুলিনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তবে পুলিন হিন্দু ধর্মাবলম্বী হওয়ায় মিলির পরিবার তার সঙ্গে মেলামেশা করতে নিষেধ করে। এ নিয়ে মিলির সঙ্গে তার পরিবারের সদস্যদের বিরোধ দেখা দেয়। একপর্যায়ে মিলি তার পরিবারের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগ বাড়ি থেকে কয়েক দিন আগে চলে আসেন। এরপর পুলিন তাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানালে মিলি আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ওসি এস এম মাহবুব উল আলম আরও জানান, পুলিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ খুঁজছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here