অনলাইন ডেস্ক| বরিশাল সদর উপজেলার পতাং মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা চলাকালে স্বেচ্ছাসেবক স্কুলছাত্র মামুন গাজীকে কুপিয়েছে সন্ত্রাসীরা। শনিবার (২৬ জানুয়ারি) সকালে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

আহত মামুন পতাং এলাকার আবুল কালাম গাজীর ছেলে ও পতাং স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র। তাকে উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই ঘটনায় সদর উপজেলার চরকাউয়া ইউনিয়নের মাসুদ রানার ছেলে মাহামুদুল হাসান হাসিব এবং দিনারের সোহেল খানের ছেলে শান্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে- পতাং মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি ছিলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুক শামীম এমপি এবং উদ্বোধক ছিলেন সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ। অতিথিদের যাওয়ার খবরে স্বপ্রণোদিত হয়ে পতাং মোড়ে কর্নেল (অব.) শামীম ও মেয়র সাদিকসহ বঙ্গবন্ধুর ছবি সংবলিত একটি তোরণ নির্মাণ করেন। সেই তোরণে বঙ্গবন্ধুর ছবি ছোট এবং সবার নীচে দেওয়া হয়। এ কারণে তোরণটি সরিয়ে নিতে শুক্রবার চিঠি দেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি চরকাউয়ার ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম ছবি। কিন্তু কথিত আওয়ামী লীগ নেতা মাশরুল আলম নাসির মিয়া তোরণটি সরিয়ে নেননি।

আজ শনিবার সকালে পতাং মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় গিয়ে ওই তোরণ দেখে ক্ষুব্ধ হন অনুষ্ঠানের দুই অতিথি প্রতিমন্ত্রী এবং মেয়র। মেয়র সাদিক বঙ্গবন্ধুকে অবমানননা করে তোরণ নির্মাণকারী নাসিরকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেন।

এ খবর পেয়ে প্রতিমন্ত্রী ও মেয়র অনুষ্ঠানস্থলে অযথা ঘোরাফেরা করে নাসিরের সহযোগীরা। এ সময় তাদের বাঁধা দেয় অনুষ্ঠানের স্বেচ্ছাসেবক মামুন। তারা অনুষ্ঠান স্থল ত্যাগ করার পরপরই নাসিরের সহযোগীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুটিয়ে মামুনকে আহত করে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন বন্দর (সাহেবেরহাট) থানার পরিদর্শক ( ওসি-তদন্ত) ফয়সাল আহমেদ বলেন- স্কুলছাত্রকে কুপিয়ে আহত করার অভিযোগে ২জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একটি রামদা। এ ঘটনায় মামলা দায়েরসহ জড়িত অন্যান্যদের গ্রেফতারের চেস্টা চলছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here