জলবায়ু পরিবর্তন অভিযোজন কর্মসূচির আওতায় বরিশালে ১৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্পের উদ্ধোধনী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার দুপুরে নগরীর হোটেল গ্র্যান্ডপার্কের বলরুমে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ।

 

সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইসরাইল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খান, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মো. শহীদুল ইসলাম, অর্থায়নকারী সংস্থা জার্মানীর কেএফডব্লিউ এর ঢাকা অফিসের কান্ট্রি ডিরেক্টর মি. অনির্বান কুন্ডু, গেস্ট অব অনার ছিলেন জার্মানীর কোকস জিএমবিএইচ এর টিম লিডার মি. দিপক গুজরাল এবং একই কোম্পানীর সিনিয়র কনসালট্যান্ট মি. মাইকেল ব্রিংকমান।

 

কর্মশালার উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ এই প্রকল্পের সাফল্য কামনা করেন। একই সাথে কাজের মান নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

জলবায়ু পরিবর্তন অভিযোজন প্রকল্পের পরিচালক বরিশাল সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী খান মো. নুরুল ইসলাম জানান, জার্মানীর কেএফডব্লিউ এর আর্থিক সহায়তায় বরিশাল নগরীতে ১৩০ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। আজ এই কর্মশালার মাধ্যমে প্রকল্পের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগামী ১ মাসের মধ্যে প্রকল্পের সরেজমিন কাজ শুরু হবে।

 

প্রকল্পের আওতায় বন্যার পানি থেকে বাঁচতে নগরীর পলাশপুর, রসুলপুর ও কলাপট্টি বস্তির ২০৬টি ঘর উচুকরন, কলাপট্টি বস্তির ৬০২ মিটার ড্রেনেজ উন্নয়ন ও ২ ইউনিট করে ২০টি টয়লেট নির্মান, ৮টি বস্তিতে পাইপ লাইনের মাধ্যমে সুপেয় পানি সরবরাহ, ৩.৪৮ কিলোমিটার সড়ক উন্নয়ন, ২২.৭০ কিলোমিটার ড্রেন পুননির্মান, নগরীর সাগরদী খালের ২.৫০ কিলোমিটার পুনখনন ও খালের দুই পাড়ে ওয়াকওয়ে নির্মাণ এবং নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ৭.১০ কিলোমিটার খাল পুনখনন করা হবে বলে জানিয়েছেন সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী খান মো. নুরুল ইসলাম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here