বরিশাল নগরীতে রুবেল হোসেন নামে এক কলেজছাত্রকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। এই ঘটনায় রুবেলের বন্ধু আহত হয়েছেন।পাশাপাশি ছুরিকাঘাতকারী মেহেদি হাসান রনিকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত রুবেল হোসেন সরকারি ব্রজমোহন কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র এবং উজিরপুর উপজেলার সাতলা ইউনিয়নের গিয়াস উদ্দিনের ছেলে। এছাড়াও এই ঘটনায় রুবেলের বন্ধু আগৈলঝাড়ার পয়সারহাট এলাকার বাসিন্দা মিতুল গুরুত্বর জখম অবস্থায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

ছুড়িকাঘাতকারী মেহেদি হাসান রনি ঝালকাঠি পাবলিক লাইব্রেরি এলাকার বাসিন্দা শওকত আলীর ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্বজনরা জানান, নগরীর মল্লিক রোডের বাসিন্দা নেছার আলীর মেয়ে সাওদার সঙ্গে দুবার বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয় মেহেদী হাসান রনি এবং দুবারই তাদের ডিভোর্স হয়ে যায়। এরপর থেকেই রনি নানাভাবে সাওদাকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। উত্ত্যক্তের ঘটনায় থানায় জিডিও দায়ের করে সাওদা। এরপর বিষয়টি সাওদা তার ছোট ভাই রাফসানকে জানান।

বৃহস্পতিবার বিকালে সাওদা, তার ভাই রাফসান, রাফসানের বন্ধু রুবেল ও মিতুলসহ বেশ কয়েকজন বঙ্গবন্ধু উদ্যানে ঘুরতে আসে। একপর্যায়ে মেহেদী হাসান রনি ছুরি নিয়ে এসে সাওদার ওপর হামলা চালাতে যায়। এ সময় রুবেল বাধা দেয়। এতে ছুরিটি রুবেলের বুকে লাগে। পাশাপাশি রুবেলের বন্ধু মিতুলকেও জখম করে রনি।

এ সময় আশপাশে থাকা লোকজন রনিকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে এবং রুবেল ও মিতুলকে শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক রুবেলকে মৃত ঘোষণা করেন।

এই বিষয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি নুরুল ইসলাস জানান, এই ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া বিষয়টি তদন্ত চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here