বরিশালের মুলাদী উপজেলার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়াউল আহসান বরিশাল রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ হওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন। মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি মো. শফিকুল ইসলাম বিপিএম(বার) পিপিএম তার কার্যালয়ে জিয়াউল আহসানের হাতে শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জের সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দিয়েছেন।

এসময় বরিশাল জেলা পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম বিপিএম (বার) সহ বরিশাল বিভাগের ৬ জেলার পুলিশ সুপার ও উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত অফিসার ইনচার্জ জিয়াউল আহসান তার মেধা, মনন, প্রজ্ঞা, সততা, কর্তব্য নিষ্ঠা, চৌকষতা, দক্ষতা ও দূরদর্শিতা দিয়ে মাত্র দেড় বছরে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, ইভটিজিং, মাদক ও বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ করে এলাকার সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রেখে গোটা মুলাদী উপজেলাকে এক শান্তির জনপদে রূপান্তর করেছেন।

একই ভাবে তিনি মুলাদী এবং ইতিপূর্বে বানারীপাড়া থানা সহ যখনই যেখানে কর্মরত থেকেছেন তখন সেই থানা এলাকায় শান্তির সুবাতাস বইয়ে দিয়ে জনমনে স্বস্তি ফিরিয়ে এনেছেন। পুলিশের ওপর অতীতের নেতিবাচক ধারণা পাল্টে দিয়ে ‘পুলিশ শাসক নয় জনগনের সেবক’ নিজ কর্মগুনে তিনি জনমনে এ ধারণা ও বিশ্বাস প্রতিষ্ঠা করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

সংস্কৃতি মনা অফিসার ইনচার্জ জিয়াউল আহসান বিপদে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে এলাকাবাসীর মন জয় করে একজন ‘মানবদরদী’ পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে সুখ্যাতি অর্জন করেছেন। এলাকার বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তার কণ্ঠের গান ও নৃত্য দর্শকদের মন জুড়িয়ে দেয়। লাঠি,অস্ত্র কিংবা রক্ত চক্ষুর ভয় দেখিয়ে নয় ভালোবাসা দিয়েও যে এলাকার আইন শৃঙ্খলা সমুন্নত রাখা যায় তিনি তা দেখিয়ে অনুকরনীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।তাইতো তিনি বানারীপাড়া থেকে বদলী হয়ে যাওয়ার সময় তার জন্য এলাকাবাসী অশ্রুজলে সিক্ত হয়েছিলো।

এদিকে তার এ সাফল্যে শুধু মুলাদীবাসী নয় তার পূর্বের কর্মস্থল বানারীপাড়াবাসীও দারুন খুশি। তাকে উষ্ণ অভিনন্দন ও ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বানারীপাড়া প্রেসক্লাব সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক,সামাজিক,পেশাজীবী ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here