২০১১ সালের এই দিনে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। সেই থেকে প্রতি বছর এ দিনটি বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

এর ধারাবাহিকতায় ২২ ফেব্রুয়ারি শনিবার দিবসটি উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নানা কর্মসূচি পালন করে। সকাল সাড়ে ১০ টায় জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে জাতীয় পতাকা, বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলণ, বেলুন এবং ফেস্টুন উড়িয়ে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. দিল আফরোজা বেগম এবং বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. ছাদেকুল আরেফিনসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

দিবসটি উপলক্ষে সকাল ১০.৪৫ টায় উপাচার্যের নেতৃত্বে আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দসহ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের অংশগ্রহণে এক বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে বরিশাল-পটুয়াখালী-ভোলা মহাসড়ক হয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় প্রশাসনিক ভবনের সামনে এসে শেষ হয়।

র‌্যালি শেষে উপাচার্য মহোদয় প্রধান অতিথি, আমন্ত্রিত অতিথি, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কর্তাব্যক্তি এবং শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

৯ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর এ মাহেন্দ্রক্ষনে এক প্রতিক্রিয়ায় উপাচার্য মহোদয় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বপ্নদ্রষ্টা স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন এবং একইসাথে তাঁর সুযোগ্য কন্যা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক এ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

পাশাপাশি  বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা আন্দোলনের সাথে যাঁরা জড়িত ছিলেন তাঁদেরসহ সমগ্র বরিশালবাসি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বীর মুক্তিযোদ্ধা, স্থানীয় প্রশাসন, সুশীল সমাজ এবং গণমাধ্যমের প্রতিও তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। উপাচার্য মহোদয় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাফল্য ও অগ্রগতি কামনা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here