dav

‘বেতাগীতে কোন মাদক জঙ্গীবাজ ও সন্ত্রাসীদের আস্তানা হবে না। মাদকসেবীরা সিগারেটের নেশা থেকে শুরু করে ধীরে ধীরে মাদকের মরণ নেশায় আকৃষ্ট হয়। এ নেশাগ্রস্থ মানুষগুলো আর সহজে আলোর পথে বেরিয়ে আসতে পারে না।

 

শেষ পর্যন্ত তাঁরা অকালে মৃত্যুবরণ করে , আর এ কারণে পুরো পরিবারটা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। পুলিশ জনগণের বন্ধু, পুলিশকে সহযোগিতা করতে হবে।

 

এ প্রজন্মের তরণরা যাতে মাদকাসক্ত না হয় না সেদিকে সকলের খেয়াল রাখতে হবে। আমরা গত ২ বছরে এ ৩৫০জন মাদকসেবীকে নিরাময়ের জন্য চিকিৎসাসেবা প্রদান করা হয়েছে , ১০৫০ জন মাদক ব্যবসায়ীকে এ পেশা থেকে ফিরিয়ে এনে অন্য কর্মসংস্থানে নিয়োজিত করেছি এবং ১ হাজার ৪০০ জন মাদকাসক্ত থেকে বিরত করতে সক্ষম হয়েছি।

 

আজ বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) বিকালে থানা মাঠে আয়োজিত কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের এক সুধী সমাবেশে এ কথাগুলো বলেছিলেন বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি মো. শফিকুল ইসলাম।

 

বরগুনা পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেনের সভাপতিত্বে এ সময় বক্তৃতা করেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মাকসুদুর রহমান ফোরকান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রাজীব আহসান, পৌর মেয়র আলহাজ্ব এবিএম গোলাম কবির,

 

বেতাগী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. নূরুল আমীন, উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক খান ও বেতাগী থানা অফিসার ইনচার্জ মো. কামরুজ্জামান মিঞা।

 

আলোচনা শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। সভা সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন প্রভাষক তনিমা রায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here