রাজধানীর খিলগাঁও ফ্লাইওভারের বাসাবোর ঢালে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। বেপরোয়া গতিতে বাইক চালাতে গিয়েই এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। বড় দুর্ঘটনা এটা প্রথম হলেও রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার এ শ্রেণীর তরুণ বাইকার বেপরোয়াভাবে বাইক চালানোর এ প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হচ্ছে নিয়মিতই।

শুক্রবার (৫ এপ্রিল) বিকেল ৩টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- সবুজবাগের ৩৮০ নম্বর ওহাব কলোনীর মোহাম্মদ শেখ আহমেদ মজিদের ছেলে আব্দুল্লাহ আল নোমান (১৭) ও ৪০১ নম্বর ওহাব কলোনীর তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে তাজউদ্দিন হোসেন তুহিন (২০)।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সবুজবাগ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) হেদায়েত হোসেন জানান, বিকেলে খিলগাঁও ফ্লাইওভারের বাসাবোর ঢালে দ্রুতগতিতে মোটরসাইকেল চালিয়ে নামার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ছিটকে পড়ে যায় নোমান ও তুহিন। এ সময় আইল্যান্ডের সঙ্গে তাদের ধাক্কা লেগে। এতে তারা গুরুতর আহত হয়। আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক সাড়ে চারটায় দু’জনকে মৃত ঘোষণা করেন। দুর্ঘটনার সময় মোটরসাইকেলটি চালাচ্ছিলো নোমান।

এসআই আরও জানান, নিহত নোমান ঢাকা স্টার্ন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণিতে ও তুহিন কদমতলী পূর্ব বাসাবো স্কুল অ্যান্ড কলেজের ১০ শ্রেণির ছাত্র। ময়না তদন্তের জন্য মরদেহগুলো মর্গে রাখা হয়েছে।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় নিয়মিত ঘটছে এ ধরনের ঘটনা। পাড়ার কাউকে তোয়াক্কা না করে ব্যাপক গতিতে হর্ন বাজিয়ে ধুলা উড়িয়ে বাইক চালাচ্ছে যুবক শ্রেণীর একাংশ। এটা তাদের কাছে কখনো স্মার্টনেস তো কখনো নিজের অবস্থান জানান দেওয়া। এখনও সচেতন না হলে এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে ভবিষ্যতে। সাধারণ মানুষও চায় না কোনো বাবা-মায়ের কোল এভাবে খালি হোক। অকালে হারিয়ে যাক কোনো সম্ভাবনাময় তরুণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here