মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার কাজলি গ্রামে স্থানীয় হাট ইজারাকে কেন্দ্র করে মো. শহর আলী (৬৫) নামে এক মুক্তিযোদ্ধাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক জখম করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এতে ওই মুক্তিযোদ্ধার একটি পা ভেঙে গেছে ও মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর জখম হয়েছে। বর্তমানে তিনি মাগুরা সদর হাসপাতালের মুক্তিযোদ্ধা কেবিনে ভর্তি আছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার দুপুরে মাগুরার পুলিশ সুপার (এসপি) খান মোহাম্মদ রেজওয়ান মুক্তিযোদ্ধা শহর আলীকে দেখতে মাগুরা সদর হাসপাতালে যান। এ সময় তিনি আহত মুক্তিযোদ্ধাকে সব ধরনের আইনি সহায়তা ও চিকিৎসার সকল খরচ বহনের দায়িত্ব নেন।

মুক্তিযোদ্ধা শহর আলী অভিযোগ করেন, সম্প্রতি তিনি স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনের কাছ থেকে নিলাম ডাকের মাধ্যমে কাজলি বাজারটি ইজারা নেন। ইজারা নেয়ার পর থেকেই ওই হাটের পূর্ববর্তী ইজারাদার কাজলি গ্রামের নজির বিশ্বাস তাকে হাট ছেড়ে দিতে চাপ দিতে থাকে। তিনি হাট ছেড়ে দিতে অস্বীকার করলে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর কাজলি দক্ষিণপাড়া এলাকায় একা পেয়ে নজির বিশ্বাস ও তার অনুগত আব্দুল্লা, আয়ুব মুন্সি, সজিব বিশ্বাস ও ডাবলু বিশ্বাস মিলে ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোঠা দিয়ে তাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে। এ সময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আহত মুক্তিযোদ্ধা শহর আলীর ছেলে মো. হামিদুল। তিনি এ হামলার উপযুক্ত বিচার দাবি করেন।

মাগুরার পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজোয়ান জানান, হামলায় অভিযুক্তদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে। অচিরেই অভিযুক্তদের আটক করা করে কোর্টে প্রেরণ করা হবে। এছাড়া এ ঘটনায় যেন এলাকায় উত্তেজনা সৃষ্টি না হয় সে জন্য অত্র বাজার এলাকায় পুলিশি টহল বাড়ানো হয়েছে। আহত মুক্তিযোদ্ধার উন্নত চিকিৎসায় যেন কোনো গাফিলতি না হয় সে জন্য জেলা পুলিশ সার্বিক সহযোগিতা দেবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here