অনলাইন ডেস্ক: মুন্সীগঞ্জে মেঘনা নদীতে ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার (৩১ মে) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে চর কিশোরগঞ্জ বালুর ঘাট ডক ইয়ার্ডের সামনে নদীতে এ ঘটনা ঘটে। ট্রলারডুবির পর উদ্ধারকর্মীরা ৪৫ জনকে উদ্ধার করলেও আরও কতজন নিখোঁজ রয়েছেন, তা জানাতে পারেননি।

তবে প্রত্যক্ষদর্শীর মতে, ট্রলারে ৭০ থেকে ৭৫ জন যাত্রী ছিলেন। ট্রলারের যাত্রীরা প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নিতে গজারিয়া থেকে মুন্সীগঞ্জে যাচ্ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকালে গজারিয়া থেকে ৭০-৭৫ যাত্রী নিয়ে ট্রলারটি মুন্সীগঞ্জের উদ্দেশে গজারিয়া থেকে রওনা দেয়। ট্রলারের অধিকাংশ যাত্রী মুন্সীগঞ্জে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নিতে যাচ্ছিলেন। ট্রলারটি চর কিশোরগঞ্জ বালুর ঘাট ডক ইয়ার্ডের সামনে পৌঁছালে বালুবাহী একটি ট্রলার ধাক্কা দেয়। এতে যাত্রীবাহী ট্রলারের ওপর বালুবাহী ট্রলার উঠে যায়। পরে যাত্রীবাহী ট্রলারটি ডুবে যায়।

খবর পেয়ে কোস্টগার্ড, ফায়ার সার্ভিস ও নৌপুলিশ নদীতে উদ্ধার অভিযান শুরু করে। কোস্টগার্ডের পেটি অফিসার মাহমুদুল হাসান জানান, খবর পেয়ে উদ্ধার অভিযান চালানো হয়। সকাল ১০টা পর্যন্ত ৪৫ জন যাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার অভিযান চালানো হচ্ছে। তবে কতজন নিখোঁজ রয়েছেন, তা তিনি জানাতে পারেননি।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নিতে যাওয়া গজারিয়ার আল আমিন জানান, দুটি ট্রলার রিজার্ভ করে তারা পরীক্ষায় অংশ নিতে মুন্সীগঞ্জে যাচ্ছিলেন। প্রতিটি ট্রলারে ৭০ থেকে ৭৫ জন ছিল। প্রথম ট্রলারে তারা মুন্সীগঞ্জে চলে যান। দ্বিতীয় ট্রলারটি দুর্ঘটনায় পতিত হয়।

এ প্রসঙ্গে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক (ভারপ্রাপ্ত) মোহা. হারুন-অর-রশীদ জানান, মুন্সীগঞ্জের পার্শ্ববর্তী হওয়ায় কোস্টগার্ডের পাশাপাশি ঘটনাস্থলে মুন্সীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস এবং সদরের ইউএনওকে পাঠানো হয়েছে। সেখানে পুলিশও রয়েছে। এখনো কোনো নিখোঁজের সংবাদ পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, সকল আরোহী তীরে উঠতে সমর্থ হয়েছেন।

জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম জানান, ঘটনাস্থলটি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার অন্তর্গত। ট্রলারটির মালিকের তথ্য নেওয়ার ও তাকে আটকের চেষ্টা চলছে। ঘটনাস্থলে নৌপুলিশ উদ্ধারকাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here