বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এর মাননীয় মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহর আকস্মিক উপস্থিতি ও তাৎক্ষণিক নির্দেশে,ভয়াবহ বৈদ্যুতিক অগ্নিকান্ড ও সর্টশার্কিট দূর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেলো,হেমায়েত উদ্দিন ইদ গাহ ময়দান ভাটারখাল সংলগ্ন সহস্রাধীক জনতার বাড়িঘর,দোকান ও ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানসহ রাস্তায় চলমান যানবাহন ও পথচারী।

আজ বিকেলে, বরিশাল মহানগরীর ১০নং ওয়ার্ড, মুক্তিযোদ্ধা পার্ক সংলগ্ন বান্দ রোডের পার্শ্বে ১১/৩৩কেভি রুপাতলী টু পলাশপুর বৈদ্যুতিক হাই ভোল্টেজ লাইনে আগুন জ্বলে উঠে,মুহুর্তের মধ্যে আগুন এর শর্ট সার্কিট লাইনে ছরিয়ে যায়,ঠিক ওই মুহুর্তেই রাস্তা দিয়ে বাইক চালিয়ে যাচ্ছিলেন বিসিসি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ্ ,আগুন এর শর্টসার্কিট দেখে,সাথে সাথে তিনি রুপাতলীস্থ ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির- বৈদ্যুতিক কন্ট্রোলরুমে নির্দেশ দিয়ে,রুপাতলী টু পলাশপুর এর ১১/৩৩কেভি লাইন বন্ধ করার নির্দেশ দেন এবং বিবিবি-১ ও ২ এর নির্বাহী প্রকৌশলীদের কে- জরুরী ভিত্তিতে লাইন টি মেরামত করিয়ে পুনরায় চালু করিয়ে দেয়ার নির্দেশ প্রদান করেন।সিটি মেয়রের নির্দেশনার কয়েক মিনিটের মধ্যে লাইন বন্ধ হয় এবং ভহাবয় অগ্নিকান্ড হতে রক্ষা পায় নগরবাসী।

বিবিবি-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী অমুল্য কুমার বাংলাদেশ বার্তা ১ ডটকম এর সাথে মুঠোফোনে জানান, ১১/৩৩ কেভি রুপাতলী টু পলাশপুর এই বৈদ্যুতিক লাইনটি ৩০ বছর পুরনো,এই ১১/৩৩কেভি বৈদ্যুতিক হাই ভোল্টেজ লাইনে একটি বড় আকারের বাদুর ১১/৩৩ কেভি হাই ভোল্টেজ মার্লিন ক্যাবলে ঝুলে পরলে এই সর্টশার্কিট আগুনের সূত্রপাত ঘটে বলে জানান তিনি।

বিবিবি-২ এর উপ সহকারী প্রকৌশলী মন্জুরুল ইসলাম জানান, বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিরলশ প্রচেস্টায়,ঘন্টা খানেকের মধ্যেই ৩৩কেভি লাইনটি,আপাতত টেম্পোরালি পুনরায় চালু করা সম্ভব হয়। আগামীকাল লাইনটি মেরামত করে সম্পর্ন রুপে চালু করা হবে।

উপস্থিত শতশত জনতা মেয়র মহোদয়ের এইরকম মহৎ কর্মকৌশল কে সাধুবাদ জানান ও বরিশাল নগরীর জন্য এরকম সৎ ও কর্মঠ আন্তরিক নগরপিতা কে নিজেদের এই আকস্মিক বিপর্যয়ের সময় পাশে পেয়ে,তারা আনন্দিত ও ভয়াবহ আগুন দূর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা করায়,সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ্ এর জন্য আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here