সীমান্তে বাংলাদেশি হত্যা বন্ধে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বলে জানিয়েছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম।

রোববার দুপুরে রাজশাহীতে বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের ২২৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি। অনুষ্ঠানের শুরুতেই বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের গার্ড অব অনার গ্রহণ করেন বিজিবির মহাপরিচালক।

এরপর তিনি জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। জাতীয় পতাকা উত্তোলনের পর সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিজিবি প্রধান।

বিজিবি প্রধান বলেন, কোনো মৃত্যুই কাম্য নয়, সব মৃত্যুই অনাকাঙ্ক্ষিত। সীমান্তে কোনো বাংলাদেশিকে হত্যা করা হবে না বলে বিএসএফ প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। কেউ অবৈধ অনুপ্রবেশ করলে সে দেশের আইন অনুযায়ী তার বিচার হবে। এরপরও মাদকের বিরুদ্ধে বর্তমান সরকার জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা প্রতিটি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সে নীতি অনুসরণ করছে। বিজিবি এর বাইরে নয়।

সাফিনুল ইসলাম আরও বলেন, মাদকের ছোবল থেকে সাধারণ মানুষকে রক্ষা করার জন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কঠোর অবস্থানে যেতে বাধ্য হয়েছে। এটি না করলে দেশে মাদকের ভয়াবহতা কমানো সম্ভব নয়। তবে কেউ যেন কোনো অন্যায় ঘটনার শিকার না হয়, সেদিকে বিজিবিসহ প্রতিটি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সতর্ক থাকতে হবে।

বিজিবির মহাপরিচালক বলেন, যেহেতু আমাদের জনবল কম, সেহেতু আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে আমাদের এই শূন্যতা পূরণ করতে হবে। এজন্য সীমান্ত এলাকায় সিসি টিভি ক্যামেরাসহ বিভিন্ন যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হবে। বিজিবি এরই মধ্যে স্মার্ট বর্ডার ম্যানেজমেন্টের সূচনা করেছে। বর্তমানে যশোরের পুটখালীতে কাজ করছে। এর মাধ্যমে চোরাকারবারি এবং অপরাধীদের ওপর নজরদারি বাড়ানোর পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে রাজশাহীর আদাতলা সীমান্ত, নওগাঁ সীমান্ত এলাকাসহ দেশের বেশ কয়েকটি সীমান্তে এই প্রযুক্তির ব্যবহার শুরুর কাজ প্রক্রিয়াধীন।

এ সময় রাজশাহী বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল তাজুল ইসলামসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here