সদর উপজেলার সায়েস্তাবাদ ইউনিয়নে ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের চরআইচা লোহারপোল এলাকায় আজাহার কাজী বাড়ীর সামনে খালের উপর ২০১৮ ও ২০১৯ অর্থবছরের দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে ব্রিজ নির্মাণ কাজটি অতান্ত্য সুন্দর ভাবে সম্পন্ন হচ্ছে।ইতিমধ্যেই এ ব্রীজটির ৯০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে ঠিকাদার ব্রিজ নির্মান কাজ অব্যাহত রেখেছে।

ব্রিজ নির্মান কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মের্সাস রাতুল এন্টারপ্রাইজের প্রোপাইটর মোঃ রুবেলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, লটারীর মাধ্যমে এ কাজটি আমি পাওয়ার পর অতিরিক্ত লাভের আশা না করে জনগনের ভোগান্তির বিষয়টি মাথায় রেখে বিএসআরএম রড,ভাল মানের সিমেন্ট,১নম্বর পাথর ও ইট দিয়ে কাজটি করেছি। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) কামরুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন-কাজে কোন অনিয়মের অভিযোগ নেই।ঐ এলাকায় আরও অনেকগুলো ব্রীজ ও কালভার্টের কাজ চলছে।তার মধ্যে এ কাজটি ভালোই হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপণা অধিদপ্তরের অর্থায়নে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচীর আওতায় গ্রামীণ রাস্তায় সেতু/কালভার্ট নির্মাণ প্রকল্পে গত এপ্রিল মাসে ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে ওই ব্রিজ নির্মান কাজের টেন্ডার আহবান করা হয়। লটারির মাধ্যমে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মের্সাস রাতুল এন্টারপ্রাইজ ব্রিজ নির্মানের কার্যাদেশ পায়।

স্থানীয় বাসিন্দা শংকর হাল জানান, ঠিকাদারের লোকজন ভালভাবেই জনগুরুত্বপূর্ণ এ ব্রিজের নির্মান কাজ করেছেন।অপর এক বাসিন্দা কাজী নজরুল বলেন এ ব্রীজটি আমার ভাইয়ের নামে হবে।সেহেতু আমরা নিজেরা দাড়িয়ে থেকেই কাজটি করেছি।এখানে ঠিকাদারের কোন অনিয়মের অভিযোগ পাইনি।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু বলেন,কাজ অনেকদুর সম্পন্ন হয়েছে।এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ পাইনি ।ওখানে আমাদের লোকজন রয়েছে তারা বিষয়টি দেখছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here