নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নির্মাণ কাজে রডের বদলে জিআই তার ব্যবহারসহ ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফলে সম্প্রতি ওই কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

দুর্গাপুর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. তানজিরুল ইসলাম জানান, চলতি অর্থ বছরে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের প্রায় ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে ওই হাসপাতালের প্রধান ফটক, চারপাশের সীমানাপ্রাচীর ও অ্যাম্বুলেন্স রাখার ভবন নির্মাণ কাজ চলছে।

তিনি আরও জানান, দুটি অংশের এ কাজে ব্যাপক অনিয়ম হওয়ায় তিনি ও স্থানীয় পৌর মেয়র মাওলানা আবদুস সালাম, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ হকসহ অনেকেই মিলে নির্মাণ কাজে সংশ্লিষ্টদের চাপ প্রয়োগ করে কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন।

পৌর মেয়র আবদুস সালাম বলেন, মেসার্স মেহেদী এন্টারপ্রাইজ ও দত্ত কন্সট্রাকসন নামের দুটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এ কাজের ওয়ার্ক অর্ডার পেয়েছে। হাসপাতালের সীমানাপ্রাচীর নির্মাণ অংশের কাজ পেয়েছে দত্ত কন্সট্রাকসন। কিন্তু এ কাজ বাস্তবায়ন করছে মাহিন এন্টারপ্রাইজের প্রোপাইটর অনুকূল তালুকদার। তারই কারসাজিতে নির্মাণ কাজের বিভিন্ন স্থানে মোটা রডের বদলে চিকন জিআই তার ব্যবহার করা হচ্ছিল। কোথাও কোথাও রড ব্যবহার করলেও রড দেয়া হচ্ছে নিয়মের চেয়ে অর্ধেকেরও কম

দত্ত কন্সট্রাকসনের কাজ বাস্তবায়নকারী অভিযুক্ত অনুকূল তালুকদার বলেন, নির্মাণ কাজে তার বিরুদ্ধে রডের বদলে জিআই তার ব্যবহারের অভিযোগ থাকলেও তিনি অস্বীকার করেছেন। তার কাজ নিয়মানুযায়ীই হচ্ছে।

নেত্রকোনা স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের উপ-সহকারি প্রকৌশলী তানভীর আহমেদ বলেন, কিছু দিন আগে এখানে অনিয়মের অভিযোগে বেশ কয়েকবার স্থানীয়রা কাজ বন্ধ করে দিলেও এখন কোনও সমস্যা নেই। কাজ সঠিকভাবেই চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here